Scores

জাতিসংঘের শুভেচ্ছা দূত হলেন মাশরাফি

null

জাতিসংঘ থেকে তার সদস্যভুক্ত দেশগুলো থেকে কিছু শুভেচ্ছা দূত নিয়োগ করে থাকে। মূলত কোন নির্দিষ্ট লক্ষ্য, উদ্দেশ্য বা পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করার জন্যই শুভেচ্ছা দূত নিয়োগ করা থাকে। বিশ্বের যেকোন শীর্ষস্থানীয় নেতা, খেলোয়াড়, চলচিত্র তারকাসহ আরও নানান পেশাজীবিদের এ পদে নিয়োগ করা হয়।

জাতিসংঘের ক্রীড়া শুভেচ্ছা দূত হলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। ২০১৪ সালের শেষের দিকে বাংলাদেশ দলের হয়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেটের অধিনায়কত্ব পাওয়ার পর বাংলাদেশকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যান মাশরাফি। তাঁর নেতৃতাধানে বাংলাদেশ বড় দলগুলোকে হারাতে পেরেছে।

Also Read - উইকেট নিয়ে চিন্তিত নয় বাংলাদেশ


২০১৪ সাল থেকে অধিনায়কত্ব পাওয়ার পর ওয়ানডেতে বাংলাদেশকে ২১ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়ে জয় পেয়েছেন ১৬ টিতে। হেরেছেন ৫ টি ম্যাচ। ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশকে প্রথমবারের মত সাত নম্বর স্থানে তুলে ধরেন মাশরাফি। তাঁর নেতৃত্বেই ২০১৭ সালে ইংল্যান্ডে বসতে যাওয়া চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জন্য কোয়ালিফাই করেছে বাংলাদেশ।

২০১৫ সাল ক্রিকেট বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে প্রথমবারের মত কোয়ার্টার ফাইনালে তুলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। বল হাতেও ২০১৪-১৫ মৌসুমে সফল ছিলেন মাশরাফি। ১৬ উইকেট শিকার করেছিলেন তিনি।

এর আগে বছরের শুরুতে উইজডেন ইন্ডিয়ার বর্ষসেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার জিতেন মাশরাফি বিন মর্তুজাআশরাফুল-বাশার-সাকিবের পর চতুর্থ বাংলাদেশী ক্রিকেটার হিসেবে জাতিসংঘের শুভেচ্ছা দূত হলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা

-রাফিন, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটিম ডট কম.

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে হাসপাতালে মাশরাফি

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতলো ভারত

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

শঙ্কা কাটিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলছেন মুস্তাফিজ

দুদকের শুভেচ্ছাদূত হলেন সাকিব