জাতীয় দল ও অনূর্ধ্ব-১৯ দলের মধ্যে পার্থক্য বুঝলেন শামীম

0
8785

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য থেকে বাংলাদেশ জাতীয় দলে এসেছেন শামীম হোসেন। জাতীয় দলে এসেই বয়স-ভিত্তিক দল ও জাতীয় দলের মধ্যে অনেক তফাৎ খুঁজে পেয়েছেন শামীম।

হার্ডহিটিংয়ের সমাধান হতে পারবেন শামীম

Advertisment

বয়স-ভিত্তিক দল ও জাতীয় দলের মধ্যে পার্থক্য অনেক। জাতীয় দলে এসে যেমন চাপ নিয়ে খেলতে হয় সেই তুলনায় অনেক কমই থাকে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের। বিশ্বকাপ হলে প্রেক্ষাপট ভিন্ন থাকে। তবুও জাতীয় দলে ক্রিকেটার হতে দর্শক হতে মিডিয়া- সবকিছু থেকেই চাপে থাকেন  ক্রিকেটাররা।

বিশেষ করে ব্যাটসম্যান-বোলারদের মধ্যেও অনেক তফাৎ থাকে। জাতীয় দলে এসে এটিই বুঝতে পেরেছেন বাংলাদেশের হয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী দলের ক্রিকেটার শামীম হোসেন। দুই দলের মধ্যে যে বিস্তর ফারাক রয়েছে সেটি মিডিয়াকে জানালেন এই তরুণ ক্রিকেটার।

“আসলে আন্ডার-১৯ এবং জাতীয় দলের মধ্যে পার্থক্য অনেক। আমরা যখন অনূর্ধ্ব-১৯ দলে খেলি সচারচর যারা পেস বোলিং করে থাকেন, তাঁরা ১৩৫ কিমি গতিতে বোলিং করেন। ১৪০ কিমি বেগে কম বলই আসে। জাতীয় দলে প্রায়ই ১৪০-১৪৫ কিমি গতিতে বল আসে। প্রায়ই সময় ১৪০ খেলতে হয়, এবং ১৫০ কিমি গতির বলও খেলতে হয়। এখানে অনেক পার্থক্য থাকে। দর্শক, মিডিয়া- সবকিছু মিলিয়ে এখানে (জাতীয় দলে) অনেক ভিন্ন মনে হয়।”

জাতীয় দলে আসার আগেই ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিল্ডিং নিয়ে বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন শামীম। এমনকি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজেও উড়ন্ত এক ক্যাচ নিয়েছিলেন তিনি। শামীমের মতে ফিল্ডিং দিয়ে ম্যাচের মোমেন্টামই পরিবর্তন করা যায়।

“আসলে একটা দলের মেইন হলো ফিল্ডিং। এই বিভাগে যদি ভালো করি অবশ্যই যেকন দলকেই ঘুরিয়ে দেওয়া যায়। আমাদের সবাই ভালো ফিল্ডিং করছে বর্তমানে। সাইফউদ্দিন ভাইও ভালো একটা ক্যাচ নিয়েছে। সব মিলিয়ে যার হাতেই উঠুক, মিস হয় না।”