জানুয়ারিতে বিদেশিদের নিয়ে বিপিএল আয়োজনে আশাবাদী বিসিবি

করোনা মহামারীর কারণে গত মৌসুমে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) অনুষ্ঠিত হয়নি। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই মৌসুমে দেশের জনপ্রিয় ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগটি আয়োজনের ব্যাপারে আশাবাদী বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। 

রাসেলের অলরাউন্ড কারিশমায় বিপিএলের চ্যাম্পিয়ন রাজশাহী রয়্যালস

Advertisment

শুক্রবার (২৮ মে) গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেন বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। তিনি জানান, ঢাকা প্রিমিয়ার লিগসহ (ডিপিএল) অন্যান্য ঘরোয়া আসর এবং অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ডের মত বড় দলগুলোর বিরুদ্ধে হোম সিরিজ সফলভাবে আয়োজন করে বিপিএল আয়োজনের আত্মবিশ্বাস অর্জন করতে চায় বোর্ড।

জালাল বলেন, ‘সামনে গুরুত্বপূর্ণ খেলা আছে, প্রথম শ্রেণির খেলা আছে, বিসিএল-বিপিএল আছে। এখানে যদি ভালোভাবে বায়োবাবল করতে পারি তাহলে বিপিএল অবশ্যই হবে। এর আগে তো বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ করেছি আমরা। আমাদের কিছু অভিজ্ঞতা তো আছেই। এর মধ্যে একটা টিমও তৈরি হয়েছে তারা জানে এটা কীভাবে করতে হয়।’

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মাঠে গড়াবে অক্টোবরে। তার আগে বাংলাদেশ সফরে আসবে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। এশিয়ার বাইরের তিন বড় দেশের বিরুদ্ধে এই তিন সিরিজ সফলভাবে আয়োজন করলে বিপিএল আয়োজনের পথ সুগম হবে বলে মনে করছেন জালাল।

তিনি বলেন, ‘অবশ্যই বড় সুযোগ। যদি এগুলো ভালোভাবে আয়োজন করতে পারি, এই মহামারীর পরিস্থিতিতে এত বড় দলের বিরুদ্ধে সিরিজ আয়োজন করতে পারি অবশ্যই উৎসাহ তো পাবেই (বিপিএল)।’

তিনি আরও জানান, গত বছর বিপিএলের আদলে আয়োজিত বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপেও বিদেশি ক্রিকেটার আনতে চেয়েছিল বিসিবি, তবে দেশিদের খেলার সুযোগ করে দিতে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

‘আমরা বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে বিদেশি খেলোয়াড় আনতে পারতাম। হয়ত ঐ মানের খেলোয়াড় পেতাম না, কিন্তু অনেকেই রাজি ছিল আসতে। শুধু নিজেদের খেলোয়াড়দের খেলাতে চেয়েছিলাম বলে… তা না হলে গত বছরই বিদেশি আনতে পারতাম।’

‘যদি জানুয়ারিতে বিপিএল করি… ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টটা যেন না ছড়ায়, জুনের ১৫ তারিখ পর্যন্ত খুব গুরুত্বপূর্ণ সময়। এর মধ্যে যদি কোভিড পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারি আর কোভিড বেশি না ছড়ায়, আমাদের জন্য সামনের খেলাগুলো আয়োজন করতে আরও সুবিধা হবে।’– বলেন জালাল ইউনুস।