Scores

টি-টেনে ফিক্সিং বিতর্ক, বহিস্কার মোসাদ্দেকদের সতীর্থ

ক্রিকেটের আধুনিকায়নের ফল হিসেবে টি-টোয়েন্টির পর এসেছে টি-টেন ক্রিকেট। দশ ওভারের ইনিংসের এই খেলায় ধুমধাড়াক্কা চার-ছক্কায় মেতে ওঠেন ক্রিকেটাররা। তবে এই ফরম্যাটে তীক্ষ্ণ নজর থাকে জুয়াড়িদেরও।

সন্দেহজনক আচরণে বহিস্কার মোসাদ্দেকদের সতীর্থ

ক্রিকেটে জুয়া বা ফিক্সিং নিষিদ্ধ। আর তাই টি-টেন লিগের প্রতি অসন্তোষ আছে অনেকের, কারণ টি-টেনের মঞ্চে ফিক্সিংয়ের অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরে। এবার চলমান আবুধাবি টি-টেন লিগেই উঠল ফিক্সিংয়ের অভিযোগ। এর জেরে জুয়াড়ির সাথে সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়া গেছে এক ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে।

Also Read - মাশরাফির 'শূন্যের' রেকর্ডে ভাগ বসালেন তামিম


স্যান্ডি সিং নামের ঐ ক্রিকেটার আবুধাবি টি-টেন লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মারাঠা অ্যারাবিয়ান্সের ক্রিকেটার। ভারতীয় বংশোদ্ভূত স্যান্ডি খেলছেন আরব আমিরাতের ক্রিকেটার হিসেবে। এবারের আসরে মারাঠা অ্যারাবিয়ান্সকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন বাংলাদেশি ক্রিকেটার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। দলে আছেন আরও দুই বাংলাদেশি ক্রিকেটার মুক্তার আলী ও সোহাগ গাজী।

স্যান্ডির বিরুদ্ধে অভিযোগ, তার আচরণ ছিল সন্দেহজনক। ফিক্সিংয়ে জড়িত থাকতে পারেন এমন ব্যক্তির সাথের স্যান্ডির যোগাযোগ ছিল। দলটির মালিকপক্ষের বিরুদ্ধেও অভিযোগ তুলছেন কেউ কেউ। তবে আপাতত শাস্তি পেয়েছেন শুধু স্যান্ডিই। তাকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।

তাই বায়োবাবল থেকে তাকে বের করে দেওয়া হয়েছে। যদিও আসরে একটি ম্যাচেও খেলা হয়নি স্যান্ডির। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে আইসিসির দুর্নীতি দমন বিভাগ সম্ভাব্য জুয়াড়িদের ব্যাপারে সতর্ক করেছিল। তবে জুয়াড়িদেরই একটি প্রতিষ্ঠান ছিল স্যান্ডির ব্যাটের স্পন্সর। টি-টেনে ফিক্সিংয়ের বিতর্ক জন্ম নেওয়ায় নড়েচড়ে বসেছে ক্রিকেট সংস্থাগুলো।

Related Articles

আইসিসির নজরদারিতে ‘৩’ বাংলাদেশি : ক্ষিপ্ত সোহাগ

মোসাদ্দেকের ক্ষ্যাপাটে ব্যাটিংয়েও জিততে পারল না মারাঠা

ওয়াসিমের তাণ্ডবে ম্লান নাসির ঝড়, মনিরের এক ওভারে ‘৩৫’ রান

ভক্তদের জন্য আরও দুই-এক বছর খেলতে চান আফ্রিদি

মোসাদ্দেকদের বিপক্ষে আফিফ ঝড়, জিতল বাংলা টাইগার্স