তারুণ্য বিষয় না, দলের জন্য আমাকে দায়িত্ব নিতেই হবে : আফিফ

0
1328

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচের পর দ্বিতীয় ম্যাচেও ব্যাট হাতে দুর্দান্ত ছিলেন আফিফ হোসেন ধ্রুব। দলকে জিতিয়ে এবার ম্যাচ সেরার পুরস্কারও উঠেছে তার হাতে। ম্যাচ শেষে বললেন, দলের জন্য কাজ করাটাই বড়।

সোহান-আফিফের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের রোমাঞ্চকর জয়

Advertisment

দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েড। বাংলাদেশের স্পিনারদের সামনে আবারও অসহায় হয়ে পড়ে অজি ব্যাটসম্যানরা। ইনিংসের শেষার্ধে পেসার মুস্তাফিজুর রহমান ও শরিফুল ইসলাম উইকেট শিকার করেন। ফলে নির্ধারিত ২০ ওভারে অস্ট্রেলিয়া সংগ্রহ করে মাত্র ১২১ রান। উইকেট হারায় ৭টি।

বাংলাদেশ ২১ রানের ভেতরেই দুই ওপেনার সৌম্য সরকার ও নাঈম শেখ সাজঘরে ফিরলেও সাকিব আল হাসান ও মেহেদী হাসান দলের খাতায় দ্রুত রান যোগ করতে থাকেন। তারপরেই হয় ছন্দপতন। দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ফিরে যান টানা দুই ওভারে। বাংলাদেশ ৫৯ রানে ৪ উইকেট হারালে মাঠে নামেন আফিফ।

দলের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে মাথা ঠাণ্ডা রেখে ব্যাটিং করেন তিনি। ৩১ বলে ৩৭ রানে অপরাজিত থাকেন আফিফ। তার ব্যাট থেকে আসে ৫ চার ও ১ ছক্কা। ম্যাচ শেষে নিজের পরিকল্পনা সম্পর্কে ম্যাচসেরা আফিফ বলেন,

‘আমার মাথায় ছিল যে শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকতে হবে এবং রিকোয়ার রেট যাই হোক না কেন আমি সেটি তোলার চেষ্টা করব। রিকোয়ার রেট হাতের নাগালে ছিল, আমাদের হাতে উইকেট রাখা দরকার ছিল। এটাই আমাদের পরিকল্পনা ছিল। সোহান ভাইও দারুণ খেলেছেন। এইজন্য আমার ওপর চাপ পড়েনি।’

চার মেরে দলের জয় নিশ্চিত করা আফিফ বলেন তিনি তরুণ খেলোয়াড় নাকি অভিজ্ঞ সেটি বড় করে দেখেন না। নিজের কাজটিকেই বড় করে দেখেন এই ক্রিকেটার, ‘আমি তরুণ নাকি অন্য কিছু সেটি কোনো বিষয় না, দলের জন্য আমাকে দায়িত্ব নিতেই হত। এটিই আমার কাজ।’