Scores

তিন সপ্তাহে আইপিএল আয়োজনের পরামর্শ পিটারসেনের

কোভিড-১৯ ভাইরাসের জন্যে স্থবির হয়ে পড়েছে গোটা বিশ্ব। ক্রীড়াঙ্গনে ও নেই কোলাহল। সব ধরনের বড় বড় টুর্নামেন্ট স্থগিত করা হয়েছে করোনা ভাইরাসের প্রকোপে। এবারের ১৩ তম ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আসরও স্থগিত করা হয়েছে। কিন্তু বিশ্বের এই দুরবস্থার সময়েই ইংলিশ ক্রিকেটার কেভিন পিটারসেন চাচ্ছেন আইপিএল দ্রুতই মাঠে গড়াক।

মার্চের ২৯ তারিখ থেকে এবারের আসর শুরু হওয়ার কথা থাকলেও, শুরুর দিন পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে এপ্রিল এর ১৫ তারিখ পর্যন্ত। কিন্তু দিন দিন সেই সম্ভাবনাও কমে আসছে। ঘোষণা না আসলেও ধরে নেয়া হচ্ছে ১৫ এপ্রিলেও মাঠে গড়াবে না আইপিএল। কারণ করোনা পরিস্থিতিতে ভারতের অবস্থারও অবনতি ঘটেছে আগের থেকে। আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যাও ছাড়িয়ে যাচ্ছে বিগত দিনগুলোকে।

Also Read - প্রতিদিন ১০ হাজার মানুষকে খাওয়াবেন সৌরভ


অথচ এই সংকটের মুহূর্তেও কিনা পিটারসেন চাচ্ছেন আইপিএল আয়োজন হোক। কেভিন পিটারসেন বলেন, ‘মন থেকে চাইছি এবারের আইপিএল দ্রুত মাঠে গড়াক। আশা করছি খুব তাড়াতাড়ি সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে যাবে এবং যথারীতি মাঠে খেলা দেখতে পারব। বর্তমান সময়টা ক্রিকেটের মৌসুম, জুন জুলাইয়ের দিকেও যদি আইপিএল মাঠে গড়ায় সেটা মন্দ হবে না। কিন্তু বিশ্ব ক্রিকেটের ইভেন্ট চিন্তা করে আমি মনে করি এখনই শুরু করা উচিত এবারের আসর। আর এই মুহূর্তে প্রতিটা খেলোয়াড়ই খেলার জন্যে মুখিয়ে আছে।’

‘ভিন্নভাবে শুরু করা যেতে পারে। ফ্র্যাঞ্চ্যাইজিগুলো চাইলে এখনই খেলা শুরু করা যেতে পারে, এতে মোটামুটি সবকিছুই ঠিক থাকতে পারে। লোকসানের পরিমাণটাও কম হতে পারে। যেকোনো দুইটা কিংবা তিনটা ভেন্যু নির্ধারণ করে খেলা শুরু করা যেতে পারে যেখানে দর্শকদের প্রবেশাধিকার নিষেধ থাকবে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত এভাবে তিন সপ্তাহে খেলা চালানো যেতে পারে।’

উল্লেখ্য, এবছরের মার্চে দর্শকদের অনুপস্থিতিতেই কিছু ম্যাচ আয়োজন করা হয়েছিল। অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে মধ্যকার একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচটি উল্লেখযোগ্য। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক করোনা ভাইরাসের মহামারী ঘোষণা দেওয়ার পরপরই দর্শক ছাড়াই ম্যাচ আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয। পিটারসেন আইপিএল আয়োজকদের উদ্দেশ্য বলেন,

‘এই মুহূর্তে দর্শক ছাড়াই আইপিএল চালিয়ে যাওয়া যেতে পারে। আপাতত দুই তিনটি ভেন্যু পরিদর্শন করে সেটা নিরাপদ জেনে সেখানে খেলা শুরু করা যেতে পারে। আর এই মুহূর্তে দর্শকদের পরিস্থিতি বিবেচনা করে মাঠে না আসা উচিত। কারণ এই মুহূর্তে মাঠে আসা তাদের জন্যে নিরাপদ নয়। সরাসরি মাঠে উপস্থিত না থেকে বাসায় বসে খেলা উপভোগ করা উচিত । পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তখন সরাসরি দেখা যাবে।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

বিদেশি লিগে খেলার আর্জি বাড়ছে ভারতীয়দের

বিশ্বকাপ না হলে আইপিএল কেন- বর্ডারের প্রশ্ন

করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ক্রিকেটের যত সিরিজ

নাফিস ইকবালকে স্মরণ করলেন রোহিতের স্ত্রী

রোহিতের অভিযোগের প্রতিবাদ করলেন ধাওয়ান