Scores

দাপুটে জয়ে প্রেসিডেন্টস কাপের শিরোপা মাহমুদউল্লাহ একাদশের

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের ফাইনালে নাজমুল একাদশকে ৭ উইকেটে হারিয়ে শিরোপা জিতেছে মাহমুদউল্লাহ একাদশ। লিটন দাসের অনবদ্য অর্ধশতকে ১২৩ বল ও ৭ উইকেট হাতে রেখেই ১৭৪ রানের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে যায় মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল।

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের শিরোপা জিতল মাহমুদউল্লাহ একাদশ

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতে মুমিনুল হককে হারাতে হলেও মাহমুদুল হাসান জয়কে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন লিটন দাস। ৩২ বলে ১৮ রানের ইনিংস খেলে জয় বিদায় নিলে ক্রিজে আসেন ইমরুল কায়েস। তার সঙ্গ কাজে লাগিয়ে লিটন পূর্ণ করেন অর্ধশতক।

Also Read - লিটন-ইমরুলের ব্যাটে শিরোপা জয়ের পথে মাহমুদউল্লাহ একাদশ


তবে ৬৯ বলে ৬৮ রান করে লিটনও জয়ের মত নাসুমের শিকারে পরিণত হন। তার আগে হাঁকান দৃষ্টিনন্দন ১০টি চার। তার বিদায়ের পর ইমরুলকে সঙ্গে নিয়ে জয়ের পথে এগোতে থাকেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। শেষপর্যন্ত ইমরুলকে নিয়ে জয় নিশ্চিত করেই মাঠ ছাড়েন। ১টি চার ও ৫টি ছক্কা হাঁকানো ইমরুল ৫৪ বলে ৪৭ রান করে অপরাজিত থাকেন। ৩টি চার ও ১টি ছক্কায় ১১ বলে ২৩ রান করে অপরাজিত থাকেন শিরোপাজয়ী অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের শিরোপা জিতল মাহমুদউল্লাহ একাদশ

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে নাজমুল একাদশ। দলীয় ৪ রানেই সাইফ হাসানকে সাজঘরে ফেরান রুবেল হোসেন। এরপর সুমন খানের বোলিং তোপে একে একে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন মুশফিকুর রহিম, সৌম্য সরকার ও নাজমুল হোসেন শান্ত। বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকতে পারেননি আফিফ হোসেন ধ্রুবও।

তবে তৌহিদ হৃদয়কে নিয়ে প্রতিরোধের চেষ্টা করেন ফর্মে থাকা ইরফান শুক্কুর। হৃদয় সাজঘরে ফিরলে দলের বাকি ব্যাটসম্যানরাও ব্যস্ত ছিলেন যাওয়া-আসায়। তবে শেষপর্যন্ত লড়াই করে গেছেন শুক্কুর। শেষপর্যন্ত তার ইনিংসে ভর করে ১৭৩ রানের পুঁজি জড়ো করে নাজমুল একাদশ। ৭৭ বলের মোকাবেলায় দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৫ রান করেন শুক্কুর।

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের শিরোপা জিতল মাহমুদউল্লাহ একাদশ

এছাড়া শান্ত ৩২ ও হৃদয় ২৬ রান করেন। মাহমুদউল্লাহ একাদশের পক্ষে সুমন খান পাঁচটি, রুবেল হোসেন দুটি এবং মেহেদী হাসান মিরাজ, এবাদত হোসেন ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ একটি করে উইকেট শিকার করেন।

স্কোরকার্ড

টস : মাহমুদউল্লাহ একাদশ

নাজমুল একাদশ : ১৭৩/১০ (৪৭.১ ওভার)

সাইফ ৪ (৫), সৌম্য ৫ (১১), শান্ত ৩২ (৫৭), মুশফিক ১২ (৩৭), আফিফ ০ (২), হৃদয় ২৬ (৫৩), শুক্কুর ৭৫ (৭৭), নাঈম ৭ (১৮), নাসুম ৩ (১৫), তাসকিন ১ (৬), আল আমিন ২* (১)

রুবেল ৮-২-২৭-২, সুমন ১০-০-৩৮-৫, এবাদত ৮.১-১৮-১, মিরাজ ৯-০-৩৯-১, বিপ্লব ৫-০-২১-০, মাহমুদউল্লাহ ৭-০-২৮-১

মাহমুদউল্লাহ একাদশ : ১৭১/৩ (২৯.৩ ওভার)

লিটন ৬৮ (৬৯), মুমিনুল ৪ (১২), জয় ১৮ (৩২), ইমরুল ৪৭* (৫৪), মাহমুদউল্লাহ ২৩* (১১)

তাসকিন ৭-০-৪৫-০, আল আমিন ৬-১-৩২-১, নাসুম ১০-০-৪৮-২, রাহী ২-০-৭-০, নাঈম ৪.৩-০-৩৮-০

ফল : মাহমুদউল্লাহ একাদশ ৭ উইকেটে জিতে চ্যাম্পিয়ন।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

Related Articles

ম্যারাডোনাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে জয় উৎসর্গ করলেন শান্ত

শান্ত-আশরাফুলের ব্যাটে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রাজশাহী

সাইফউদ্দিনের ইনজুরি দুর্ভাগ্যবশত : শান্ত

‘ঘরোয়া লিগের নিয়মিত পারফর্মাররাই আমাদের দলে আছেন’

আজ ইয়ো ইয়ো টেস্ট দিলেন চার ক্রিকেটার