Scores

নতুন অনূর্ধ্ব-১৯ দলে থাকছেন বিশ্বকাপজয়ী দুই ক্রিকেটার

ইতিহাসে নাম তুলেছে আকবর আলীর দল। প্রথমবারের মত বাংলাদেশকে পাইয়ে দিয়েছে বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ। এবার ২০২০ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ীদের প্রস্তুত হতে হচ্ছে ২০২২ বিশ্বকাপের জন্য। যে কারণে নতুন করে গঠন করা হচ্ছে যুব দল। যেখানে ডাক পেয়েছেন বিশ্বকাপজয়ী দলের দুই সদস্য।



চলতি বছররের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী দল বাংলাদেশ। সেই হিসেবে বর্তমান চ্যাম্পিয়নের খেতাব নিয়েই পরবর্তী আসরে মাঠে নামবে যুব টাইগাররা। এই দলের অংশ হবেন কারা? তা এখনও নির্ধারণ হয়নি। সেটা ঠিক করতেই ৪৫ ক্রিকেটারকে নিয়ে ২২ আগস্ট থেকে ক্যাম্প শুরু করবে বিসিবি। বিকেএসপির এই ক্যাম্পে যোগ দিতে করোনা পরীক্ষায় পাস করতে হবে যুব ক্রিকেটারদের।

Also Read - দুটি সিনেমায় অভিনয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছি : জাহানারা

এই ৪৫ ক্রিকেটারের মধ্যে থাকছে দুটো পরিচিত নাম। যারা গতবার অর্থাৎ বিশ্বকাপজয়ী দলের মূল স্কোয়াডে ছিলেন। বয়সের কোটা পূরণ না হওয়ায় অভিজ্ঞতার বিচারে প্রান্তিক নওরোজ নাবিল ও মেহরাব হোসেন অহিনকে ২০২২ বিশ্বকাপের স্কোয়াডে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি।

প্রান্তিক শুরু থেকে ১৫ সদস্যের স্কোয়াডে থাকলেও বিশ্বকাপের মঞ্চে কোনো ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি। মেহরাব অবশ্য শুরুতে মূল স্কোয়াডে ছিলেন না। টুর্নামেন্টের মাঝপথে পেসার মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর চোটে ভাগ্য সুপ্রসন্ন হয় তার। আগামী বিশ্বকাপেও বাংলাদেশ দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করবেন এই দুই ক্রিকেটার।

এছাড়া বিকল্প দলে থাকা বিকেএসপির ছাত্র আশরাফুল ইসলাম সিয়াম এবারও সুযোগ পাচ্ছেন। গতবার মূল স্কোয়াডে না থাকলেও অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে এশিয়াকাপ সহ বেশকিছু সিরিজ খেলেছেন তিনি।

বিডিক্রিকটাইমকে  বিসিবির গেম ডেভলপমেন্টের ম্যানেজার আবু এনাম মোহাম্মদ কায়সার বলেন, ‘বিশ্বকাপজয়ী গতবারের দল থেকে আমরা দুইটা ক্রিকেটারকে এবার রাখতে চাইছি। একজন প্রান্তিক নওরোজ নাবিল ও আরেকজন মেহরাব হোসেন অহিন। এরা গতবার আমাদের মূল স্কোয়াডে ছিল। ভালো এবং যোগ্য জন্যই গতবারের দলে ছিল।’

এদিকে ২২ আগস্ট থেকে যুব দলের আবাসিক ক্যাম্প শুরু হলেও সেখানে থাকতে পারবেন না প্রধান কোচ নাবিদ নেওয়াজ। বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় আছেন তিনি। সেখানে করোনার সংক্রমণ বাড়ার ফলে স্থানীয় সরকারের ছাড়পত্র পাচ্ছেন না। তবে বোর্ডের আশা, সময়ের আগেই চলে আসবেন কন্ডিশন অ্যান্ড ফিটনেস কোচ রিচার্ড স্টোনিয়ার।

কায়সার জানান, ‘প্রধান কোচ এই মুহূর্তে অস্ট্রেলিয়ায় আছেন, ভিক্টোরিয়া রাজ্যে। সেখানে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ আবার শুরু হয়েছে। ফলে কঠোর লকডাউন চলছে। অনেকটা কারফিউয়ের মতো।’

‘এই কারণে সেখানকার সরকারের একটা বিধিনিষেধ আছে। রাজ্য ছেড়ে অন্য কোথাও বা দেশের বাইরে কাজের জন্য যেতে হলে অনুমতির প্রয়োজন পড়ে। এখন সেখানকার যে অবস্থা, সেই অবস্থায় সরকার মনে করছে বাইরে যাওয়াটা নিরাপদ নয়।’– সাথে যোগ করেন তিনি।

প্রধান কোচ না থাকলেও খুব একটা অসুবিধা দেখছে না বোর্ড, ‘শেষপর্যন্ত তিনি যদি না আসতে পারেন সেক্ষেত্রে আমাদের বিকল্প ব্যবস্থা আছে। স্থানীয়রা আছেন, অন্যান্য যে কোচরা আছেন তাদের নিয়েই কাজ চলবে।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।


Related Articles

জমে উঠেছে যুবাদের সাদা পোশাকের ম্যাচ