নতুন রেকর্ড গড়ে শচীন-শেবাগকে পেছনে ফেললেন কোহলি

0
580

বিশ্বকাপে যেন বিরতি নিয়েছিল তার ‘ফর্ম’। বিরাট কোহলি আবারো ফিরেছেন পুরনো রূপে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পুনে টেস্টের প্রথম ইনিংসে হাঁকিয়েছেন দুর্দান্ত এক দ্বি-শতক।

নতুন রেকর্ড গড়ে শচীন-শেবাগকে পেছনে ফেললেন কোহলি

Advertisment

প্রোটিয়া বোলারদের ধৈর্যের পরীক্ষা নিয়ে কোহলি অপরাজিত ২৫৪ রান করেন। দলের ইনিংস ঘোষণার আগ পর্যন্ত তাকে সাজঘরে ফেরাতে পারেননি কেউ। ক্যারিয়ারের সেরা ইনিংস গড়ে দলকে টেনে নিয়েছেন ৬০১ রান পর্যন্ত। এই ইনিংস গড়ার পথে কোহলি পেছনে ফেলেছেন শচীন টেন্ডুলকার ও বীরেন্দর শেবাগের মত কিংবদন্তীদের।

কোহলি শচীন-শেবাগকে টপকেছেন দ্বি-শতক হাঁকানোর মাধ্যমে। ভারতের হয়ে সবচেয়ে বেশি দ্বি-শতক এখন কোহলিরই।

টেস্টে এতদিন ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ ৬টি দ্বি-শতক ছিল শচীন, শেবাগ ও কোহলির। শুক্রবার (১১ অক্টোবর) ৭ম দ্বি-শতক হাঁকিয়ে কোহলি দুই পূর্বসূরিকেও ছাড়িয়ে গেছেন। ক্যারিয়ারের প্রথম দিকে শতকগুলোকে দ্বি-শতকে রূপ দিতে ব্যর্থ হচ্ছিলেন। তা না হলে আরও আগেই হয়ত ভেঙে ফেলতেন শচীন-শেবাগের রেকর্ড।

ভারতের ইতিহাসের কোহলিই এখন সবচেয়ে বেশি দ্বি-শতকের মালিক। যদিও টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে কোহলি এখনো বেশ পিছিয়ে রয়েছেন শীর্ষস্থান থেকে। ক্রিকেটের সর্বকালের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান অস্ট্রেলিয়ার ডন ব্র্যাডম্যান মোট ১২ বার দ্বি-শতক হাঁকিয়েছিলেন। অবশ্য ৩০ বছর বয়সী ভারতীয় অধিনায়ক ক্যারিয়ারের বাকি সময়ে ব্র্যাডম্যানকে পেছনে ফেলার সুযোগ পাচ্ছেন।

কোহলির ৭টি দ্বি-শতকের সবগুলোই এসেছে শেষ ৪০ ইনিংসে, যেখানে প্রথম ৭২ ইনিংসে একটিও দ্বি-শতক ছিল না। সবচেয়ে বেশি ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ডধারী ব্র্যাডম্যান ওপারে বসে কোহলিকে দেখে শিহরিত হতে পারেন। বর্তমান সময়ের সেরা ব্যাটসম্যান যে অনেকটা অপ্রতিরোধ্য গতিতে ছুটছেন! অবশ্য তার আগে কোহলিকে পেছনে ফেলতে হবে কুমার সাঙ্গাকারা (১১টি দ্বি-শতক), ব্রায়ান লারা (৯টি দ্বি-শতক) , ওয়ালি হ্যামন্ড (৭টি দ্বি-শতক) ও মাহেলা জয়াবর্ধনেকে (৭টি দ্বি-শতক)।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।