Score

নিউজিল্যান্ডে অপেক্ষা করছে ‘কঠিন চ্যালেঞ্জ’

২০১৮ সালে টেস্টের শেষটা দারুণভাবেই করেছে বাংলাদেশ। বছরের শেষের ধারা আগামী বছরের শুরুতে ধরে রাখাটা একটু কঠিনই হবে বাংলাদেশের জন্য। ২০১৯ সালের শুরুতেই যে বাংলাদেশের জন্য অপেক্ষা করছে কঠিন চ্যালেঞ্জ।

নিউজিল্যান্ডে অপেক্ষা করছে কঠিন চ্যালেঞ্জ
আগামী বছর প্রথম টেস্ট বাংলাদেশ খেলবে নিউজিল্যন্ডের মাটিতে। নিউজিল্যান্ডের সফরে এখন পর্যন্ত কোনো টেস্ট ড্র-এর রেকর্ড নেই। পরিসংখ্যান তো পক্ষে নেই, পক্ষে নেই কন্ডিশনও। সেখানকার বাউন্সি পিচ কিংবা বাতাসের সাথে মানিয়ে নেওয়াটাও হবে কঠিন কাজ। সেটা ভালো জানা আছে অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের।

ঢাকা টেস্ট শেষে সংবাদ সম্মেলনে সাকিব আল হাসান বলেন, “নিউজিল্যান্ডে অবশ্যই কঠিন হবে। ভিন্ন চ্যালেঞ্জ আমাদের জন্য। নিউজিল্যান্ডে এ যাবৎ বাংলাদেশ টিম যতদিন যতবার গিয়েছে এখন পর্যন্ত কোনো ম্যাচ ড্রও হয় নাই। জেতা তো দূরের কথা, এটা কোনো ফরম্যাটেই হয় নাই।” 

Also Read - মিরাজের প্রশংসায় সাকিব

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে একটা ম্যাচ ড্র হলেও অনেক বড় অর্জন হবে বলে মনে করেন সাকিব। জয়ের লক্ষ্য নিয়ে সব ম্যাচে নামলেও বাস্তবতা অনেক কঠিন বলে মনে করেন তিনি। তিনি বলেন, “আমাদের জন্য অনেক বড় একটা চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে। চেষ্টা থাকবে যেন আমরা এমন কিছু করতে পারি অন্তত মনে রাখার মত একটা স্মৃতি থাকে। এখন পর্যন্ত কোনো স্মৃতি নাই। একটা ম্যাচও যদি ড্র করতে পারি সেটাও বড় অর্জন হবে। অবশ্যই চাইব প্রতি ম্যাচ জেতার জন্য খেলার। কিন্তু বাস্তবতা যদি চিন্তা করি আমাদের জন্য খুবই কঠিন চ্যালেঞ্জ ওখানে অপেক্ষা করছে।”  

ঘরের মাঠে টেস্টে স্পিনাররাই বাংলাদেশের প্রধান অস্ত্র। তবে নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশন সহায়ক পেসারদের জন্য। ধার কমে আসবে স্পিনারদের। তাই সাকিব মনে করেন দায়িত্বটা নিতে হবে ব্যাটসম্যান আর পেসারদের। সাকিব বলেন, ” আমাদের ভালো অবস্থায় থাকতে হবে। বিশেষ করে ব্যাটিংটা খুবই ভালো করতে হবে। আমাদের ফাস্ট বোলারদের চ্যালেঞ্জটা নিতে হবে। তাহলে ভালো করার সম্ভাবনা থাকবে।”  


আরো পড়ুনঃ  ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দশ উইকেটকে এগিয়ে রাখছেন মিরাজ


Related Articles

বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড সফরের সূচি চূড়ান্ত

মোসাদ্দেকের স্বপ্নপূরণ

কিউইদের ধারণারও বাইরে ছিলেন সৈকত!

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি অভিষেক স্মরণীয় করলেন তাসকিন

‘আমরা বেশি কথা বলিনি’