পরিকল্পনায় বাস্তবায়ন করাতেই সফল শান্ত

0
627

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মিরপুরে একমাত্র টেস্টে প্রথম ফিফটির দেখা পেয়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ইনিংস বড় করার সুযোগ থাকলেও সন্তুষ্টির কথা জানিয়েছেন তিনি। সেই সাথে মানসিকভাবেও অনেক পরিবর্তন এসেছে বললেন নাজমুল।

Advertisment

মূলত পাকিস্তান সফরে মুশফিক না যাওয়াতে তার পরিবর্তে টেস্ট দলে সুযোগ পেয়েছিলেন নাজমুল শান্ত। রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে বড় ইনিংস খেলতে না পারলেও হেড কোচ ডমিঙ্গোর এক ম্যাচ দেখে বাদ না পড়ার থিওরিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে ডাকা হয় তাকে। মিরপুরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ব্যাট হাতে প্রথম ফিফটির পাশাপাশি ৭১ রানের ইনিংস খেলেন নাজমুল।

শুমার স্ট্যাম্পের বাইরের বল ব্যাটে লেগে কিপারের হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। চাইলে ৭১ কে শতকে পূরণ করতে পারতেন তিনি। তবে সেই শটটি না খেললে হয়ত কাঙ্ক্ষিত সেঞ্চুরিও পেতে পারতেন তিনি। সংবাদ সম্মেলনে সেঞ্চুরি করার সুযোগ ছিল কি না এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,

“অবশ্যই সুযোগ ছিলো, উইকেটটা যেহেতু ভালো ছিলো। কিন্তু আমি মনে করি ব্যাটিং ভালো হয়েছে। শুরুটা যেমন হয়েছিলো ইনিংস বড় করা উচিৎ ছিলো।”

তিনি আরও যোগ করেন, “টিম মিটিং হয়েছে, আমাদের ব্যাটিংয়ের নির্দিষ্ট একটা প্ল্যান আছে। আমরা প্রথমে চিন্তা করছিলাম উইকেটটা কেমন আচরণ করবে ওই অনুযায়ী খেলব। দেখা গেছে যে উইকেটটা ভালো। ওই অনুযায়ী আমরা ব্যাটিং করেছি।”

নাজমুলের অভিষেক হয়েছিল নিউজিল্যান্ডের মাটিতে। সেবারও সুযোগ মেলেছিল মুশফিকের সুবাদে। এরপর বেশ কয়েকবারই জাতীয় দলে এসেছেন এবং বাদও পড়েছেন। তবে আগের থেকে এখন অনেক পরিণত হয়েছেন নাজমুল।

“আমার কাছে যেটা সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়েছে শেষ কয়েক মাসে মানসিকভাবে খুব ভালোভাবে পরিবর্তন হয়েছে। যেটা আমার নিজের উপর বিশ্বাসটা আগের থেকে বেড়েছে। দক্ষতার উন্নতি আগের থেকে অবশ্যই বেশি হয়েছে। আগে আমার কাছে মনো হতো যে আমি খুব তাড়াহুড়ো করতাম, এখন ওই জিনিসটা এসেছে যে শুরুটা দেখে-শুনে বলের আচরণ বুঝে শুরু করছি। আমার কাছে মনে হয় যে ইনিংসের শুরুটা আগের থেকে গোছানো হয়েছে।”

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।