‘প্রতিশোধ’ নয়, তামিমের চোখ ‘পয়েন্টে’

বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে তামিমের যাত্রা শুরু হয় এ বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোম সিরিজ দিয়ে। এর আগে ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক হিসেবে শ্রীলঙ্কা সফর করেছিলেন। তবে সেই স্মৃতি ছিল দুঃসহ অভিজ্ঞতার।

'প্রতিশোধ' নয়, তামিমের চোখ 'পয়েন্টে'

Advertisment

২০১৯ বিশ্বকাপের পর শ্রীলঙ্কার মাটিতে তিনটি ওয়ানডে খেলে তিনটিই হেরেছিল তামিমের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ। এবার স্থায়ী অধিনায়ক হিসেবে মাঠে নামার আগে তামিমের কাছে জানতে চাওয়া হল, ‘প্রতিশোধ’ নেওয়ার উত্তম সুযোগ কি না।

তামিম অবশ্য জানালেন, প্রতিশোধ নিতে লঙ্কানদের হারাতে চান এমন নয়, বরং আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টের জন্য লঙ্কানদের সিরিজে হারাতে চান তিনি।

তামিম বলেন, ‘(প্রতিশোধ) ওরকম দেখি না। আমার কাছে মনে হয় এটা সুপার লিগে পয়েন্ট পাওয়ার বড় সুযোগ। যেহেতু ওয়ানডেতে খুব বেশি হোম সিরিজ খেলবো না, তাই এটা আমাদের জন্য বড় এক চ্যালেঞ্জ। এই সিরিজ থেকে যেন সর্বোচ্চ পয়েন্ট নিতে পারি। প্রতিশোধের ব্যাপারটা আমি ভাবি না। আমার দলে শতভাগ দিতে হবে, সব ঠিকভাবে করতে হবে, তাহলে জয়ের সুযোগ থাকবে।’

শ্রীলঙ্কান যে দলটি বাংলাদেশ সফরে এসেছে, সেখানে নেই সিনিয়র ও অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের অনেকে। তবে অভিজ্ঞতার বিচারে নিজেদের খুব বেশি এগিয়ে রাখতে চান না তামিম।

তার ভাষায়, ‘ক্রিকেটে অভিজ্ঞতা কাজে লাগে। কিন্তু তার চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ হল আপনি কেমন খেলছেন, পরিকল্পনা কেমন বাস্তবায়িত করছেন। শ্রীলঙ্কার এই দলের খেলোয়াড়দের সাথে আন্তর্জাতিক হোক বা ঘরোয়া ক্রিকেটে কমবেশি খেলেছি। তারা খুবই মানসম্পন্ন দল। তারা এমন প্রতিপক্ষ যাদের বিপক্ষে কখনই কিছু সহজ হয় না। আমাদের যদি ভালো করতে হয় বা ম্যাচ জিততে হয় আমাদের শতভাগের বেশি দিতে হবে।’

শ্রীলঙ্কাকে ভয়ংকর দল হিসেবে আখ্যায়িত করে তামিম বলেন, ‘তারা ভয়ংকর একটি দল। অভিজ্ঞতা অবশ্যই একটি ব্যাপার, যদি খেলায় এমন পরিস্থিতি আসে যেখানে অভিজ্ঞতা বড় ভূমিকা রাখবে, সেই পরিস্থিতিও আমাদের তৈরি করতে হবে। যদি এমন সুযোগই না আসে বা পরিকল্পনা কাজেই না লাগাতে পারি তাহলে আপনি যতই অভিজ্ঞ হোন না কেন, লাভ নেই।’