প্রথম দিনে মুশফিক-লিটনের ব্যাটে যত রেকর্ড

0
2523

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিন শেষে বেশ ভালো অবস্থানে আছে বাংলাদেশ৷ ৪ উইকেট হারিয়ে স্কোরকার্ডে ২৫৩ রান তুলে প্রথম দিন শেষ করেছে তারা৷

ডিক্লেয়ারের বেঞ্চমার্ক নেই, যতদূর সম্ভব ছুটতে চায় টাইগাররা 2
পঞ্চম উইকেট জুটিতে অবিচ্ছিন্ন ২০৪ রান যোগ করেছেন মুশফিক ও লিটন।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজেও ভরাডুবি দিয়ে পাকিস্তান সিরিজ শুরু করেছিল টাইগাররা৷ কিন্তু, লাল বলের ক্রিকেটে এক বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে দেখেছে বাংলাদেশের পয়মন্ত ভেন্যু হিসেবে খ্যাত জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম৷ বিশেষ করে মুশফিক আর লিটনের ব্যাটে ভর করে অনন্য কিছু রেকর্ডের সাক্ষী হয়েছে চট্টগ্রামের এই ভেন্যু৷ আসুন চোখ বুলিয়ে নেই প্রথম দিনে জন্ম নেওয়া কিছু অনন্য পরিসংখ্যানে৷

Advertisment

বিরাট কোহলির চেয়েও এগিয়ে গেলেন লিটন  

সাদা বলের ক্রিকেটে ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বাজে বছর কাটালেও লাল বলের ক্রিকেটে যেন সম্পূর্ণ ভিন্ন ক্রিকেটার লিটন কুমার দাস। ক্যারিয়ারের সবচেয়ে মধুর সময় কাটাচ্ছেন তিনি৷ মাত্র ৯ ইনিংসে ব্যাট করে ২০২১ সালে এখন পর্যন্ত তার সংগ্রহ ৪৬৬ রান৷ প্রথম দিনের খেলা শেষে তিনি অপরাজিত আছেন ১১৩ রানে৷ আর সেই সাথে বিরাট কোহলিকে ছাড়িয়ে গেছেন তিনি৷ লিটনের চেয়ে ৬ ইনিংস বেশি ব্যাট করে ২০২১ সালে এখন পর্যন্ত ৪৪৭ রান করেছেন ভারতের অধিনায়ক৷

২০২১ সালের শীর্ষ রান সংগ্রাহকদের তালিকায় লিটন কুমার দাস এখন আছেন ১২ নম্বর স্থানে৷ সতীর্থ মুমিনুল হককে সরিয়ে ১১তম স্থানে আসতে দ্বিতীয় দিনে তার প্রয়োজন আর মাত্র ১৩ রান। ১৪৫৫ রান নিয়ে তালিকার প্রথম স্থানে থাকা ইংলিশ ব্যাটার জো রুট এবছর সর্বমোট ২৩ ইনিংসে ব্যাট করার সুযোগ পেয়েছেন।

দেশের মাটিতে সবার সেরা মুশফিকুর রহিম 

ইঞ্জুরির কারণে পাকিস্তান সিরিজ মিস করেছেন দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল খান৷ আর এই সুযোগে দেশের মাটিতে সর্বোচ্চ টেস্ট রান করার হিসেবে তামিম ইকবালকে পিছনে ফেলে এগিয়ে গেছেন মুশফিকুর রহিম৷

এতদিন বাংলাদেশের মাটিতে টেস্টে সবচেয়ে বেশি রান ছিল তামিম ইকবাল খানের৷ ২৬২০ রান নিয়ে সবার শীর্ষে ছিলেন তিনি। কিন্তু চট্রগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনে ৮২ রানে অপরাজিত থাকার সুবাদে মুশফিক ছাড়িয়ে গেছেন অভিজ্ঞ এই ওপেনারকে। চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিন শেষে দেশের মাটিতে টেস্ট ক্রিকেটে মুশফিক এখন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। এই তালিকায় তৃতীয় স্থানে আছেন সাকিব আল হাসান (২৫৪৫)। মুমিনুল হকের আছে ২৩১৮ রান। পঞ্চম স্থানে থাকা সদ্য সাবেক ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের রান ১৬২৬।

মুমিনুলের ঘরের মাঠের রাজত্ব এখন মুশফিকের 

নিজের পরিচিত ঘরের মাঠে খেলতে নামলেই হাসে টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হকের ব্যাট৷ পরিসংখ্যান বলছে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টাইগার দলপতি একেবারে অপ্রতিরোধ্য৷ কিন্তু, পাকিস্তানের বিপক্ষের প্রথম টেস্টের প্রথম দিনে হাসেনি টাইগার দলপতির ব্যাট৷ মাত্র ৬ রান করে আউট হয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক৷ আর এই সুযোগে পিছিয়ে থাকা মুশফিক ছাড়িয়ে গেছেন তাকেও৷ মুমিনুল হকের ১২০৩ রানের বিপরীতে মুশফিকের রান এখন ১২৭৬৷

এই তালিকার তৃতীয় স্থানে আছেন আরেক ঘরের ছেলে তামিম ইকবাল (৯০৫)। চতুর্থ স্থানে ৮৬৫ রান নিয়ে আছেন সাকিব আল হাসান। শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তি কুমার সাঙ্গাকারা ৫৯৮ রান নিয়ে আছেন তালিকার পঞ্চম স্থানে।

উইকেটরক্ষকদের মধ্যে দ্বিতীয় সেরা লিটন কুমার দাস

কথায় বলে যিনি রাঁধেন তিনি চুলও বাধেন৷  বাংলাদেশ ক্রিকেট দল এই ক্ষেত্রে তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলতে পারে উইকেটরক্ষক ব্যাটার লিটন কুমার দাসকে দেখে৷  গ্লাভস হাতে উইকেট সামলানোর পাশাপাশি এই ব্যাটার চলমান বছরে যে আলো ছড়িয়েছেন উইলো হাতেও৷ আজকের সেঞ্চুরির সাথে ৪৮৩ রান নিয়ে তিনি চলে এসেছেন ২০২১ সালে সর্বোচ্চ রান করা উইকেটরক্ষক ব্যাটারদের তালিকায় দুই নম্বরে৷


লিটন পিছনে ফেলেছেন পাকিস্তানের উইকেটরক্ষক ব্যাটার মোহাম্মদ রিজওয়ান ও শ্রীলঙ্কান নিশান ডিকওয়ালাকে৷ ১৯ ইনিংসে ৭০৬ রান করে তার সামনে এখন আছেন শুধু ভারতের রিশাভ পান্ট।

সেই সাথে উইকেটরক্ষক ব্যাটারদের মধ্যে ব্যাটিং গড়ের হিসেবে সবার উপরে আছেন লিটন৷ ৯ ইনিংসে তার ইনিংস প্রতি গড় ৬০.৩৭৷ ৫৫ ও ৪৪.১১ গড় নিয়ে  দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে আছেন যথাক্রমে লঙ্কান দীনেশ চান্দিমাল ও পাকিস্তানের মোহাম্মদ রিজওয়ান৷

রেকর্ড গড়া মুশফিক-লিটন জুটি

দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন টাইগার দলপতি মুমিনুল হক৷ তবে, অধিনায়কের সেই সিদ্ধান্তের ফায়দা উঠাতে ব্যর্থ হয়েছেন বাংলাদেশের ব্যাটাররা৷ উল্টো মাত্র ৪৯ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে প্রথম ইনিংসে ভরাডুবির দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে ছিলেন টাইগাররা।

লিটন-মুশফিকের রেকর্ড গড়া পার্টনারশিপে বাংলাদেশের দাপুটে দিন
প্রথম শতকের পর লিটনের উদযাপন, পাশে দাঁড়িয়ে মুশফিকের অভিবাদন।

দলকে এমন অবস্থা থেকে তুলে আনার দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেন উইকেটরক্ষক ব্যাটার লিটন দাস ও অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিম৷ পঞ্চম উইকেট জুটিতে তারা এখন পর্যন্ত যোগ করেছেন ২০৪ রান৷ সেই সাথে জন্ম দিয়েছেন পঞ্চম উইকেট জুটিতে অনেকগুলো রেকর্ডের৷

পাকিস্তানের বিপক্ষে ৫ম উইকেটে এটাই সর্বোচ্চ জুটি বাংলাদেশের৷ যেকোনো উইকেটের বিচারে যা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ৷ সামনে আছে শুধু তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েসের ৩১২ রানের ওপেনিং জুটি৷ জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামেও ৫ম উইকেটে এটাই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ জুটি৷ আর ৩৩ রান যোগ করতে পারলে সাগরিকার মাঠে যেকোনো উইকেটে এটিও হয়ে যাবে বাংলাদেশ দলের সর্বোচ্চ পার্টনারশিপ৷

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনের চ্যাটে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime Crickey সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।