Scores

ব্যাটে-বলে ‘নিষ্প্রভ’ সাকিব; বার্বাডোজের হার

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (সিপিএল) প্রথম কোয়ালিফায়ারে ব্যাটে-বলে নিষ্প্রভ সাকিব আল হাসান। তার দুঃস্বপ্নের মতো দিনে হেরেছে দল বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টস! সাকিবদের ৩০ রানের ব্যবধানে হারিয়ে সিপিএল ২০১৯ আসরের ফাইনালে খেলার টিকিট নিশ্চিত করেছে গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্স।

হাসলো না সাকিবের ব্যাট।

প্রোভিডেন্সে প্রথমে ব্যাট করে ব্রেন্ডন কিংয়ের অপরাজিত ১৩২ রানের কল্যাণে ৩ উইকেটে ২১৮ রানের পাহাড়সম পুঁজি পায় গায়ানা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৮৮ রান করতে সক্ষম হয় বার্বাডোজ। এর ফলে আসরে টানা ১১তম জয়ের দেখা পায় গায়ানা। যা তাদের পৌঁছে দেয় চলতি আসরের ফাইনালে।

Also Read - বল হাতে সিপিএলে সাকিবের তিক্ত অভিজ্ঞতা


রান তাড়া করতে নেমে দলীয় ৩২ রানে প্রথম উইকেট হারায় বার্বাডোজ। এরপর ক্রিজে আসেন সাকিব। বল হাতে তিক্ত অভিজ্ঞতার পর ব্যর্থ হন ব্যাটিংয়েও। গায়ানার বিপক্ষে মাত্র ৯ বল ক্রিজে ছিলেন তিনি। শোয়েব মালিকের বলে শিমরন হেটমায়ারের হাতে ক্যাচ দিলে থামে তার ৫ রানের ইনিংস।

সাকিবের মতো বাকি ব্যাটসম্যানদেরও নিষ্প্রভতায় ম্যাচ হারে বার্বাডোজ। শুরুর দিকে অ্যালেক্স হেলসের ১৯ বলে ৩৬ কিংবা শেষের দিকে জনাথন কার্টার ২৬ বলে ৪৯ রান করলেও ব্রেন্ডনের মতো ইনিংস টেনে নিতে পারেনি কেউই। যার ফলে পাহাড়সম লক্ষ্যমাত্রাও টপকানো হয়ে ওঠেনি বার্বাডোজের। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৮৮ রানে থামে দলটির ইনিংস।

এর আগে বল হাতেও মুদ্রার উল্টো পিঠ দেখেন সাকিব। খরুচে বোলিংয়ের বিপরীতে থাকেন উইকেটবিহীন। বিগত ম্যাচগুলোতে সাকিবকে দিয়ে বোলিংয়ের আক্রমণ শুরু করলেও আজ ভিন্ন পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নামে বার্বাডোজ। ইনিংসের প্রথম ওভার করতে বল তুলে নেন জেসন হোল্ডার। অধিনায়ক ম্যাচের প্রথম ওভার করার পর দ্বিতীয় ওভারেই আক্রমণে নিয়ে আসেন সাকিবকে।

ব্যাটে-বলে 'নিষ্প্রভ' সাকিব; বার্বাডোজের হার

প্রথম বলে ৪ রান দিয়ে গায়ানার বিপক্ষে বোলিং স্পেল শুরু করেন সাকিব। এরপর ঘুরে দাঁড়ান দারুণভাবে। ওভারের বাকি ৫ বলে খরচ করেন মাত্র ২ রান। প্রথম ওভারে ৬ রান খরচার পর ব্যক্তিগত দ্বিতীয় ওভারে ৭ রান দেন তিনি। পাওয়ার-প্লে চলাকালীন সময়ে প্রথম স্পেলে এ দুই ওভারই করেন সাকিব। যেখানে ১৩ রান খরচার বিপরীতে উইকেটহীন থাকেন বাঁহাতি এ স্পিনার।

দ্বিতীয় স্পেলে ইনিংসের ১২তম ওভারে বল করতে আসেন সাকিব। তার এ ওভার থেকে মাত্র ৪ রান নিতে সক্ষম হয় গায়ানার ব্যাটসম্যানরা। এরপর তাকে আবারও আক্রমণ থেকে সরিয়ে নেন হোল্ডার।

আগের ৩ ওভারে ১৭ রান দেওয়া সাকিবকে ফিরিয়ে আনা হয় ইনিংসের ১৬তম ওভারে। ব্যক্তিগত শেষ ওভারে বল করতে এসে তিক্ত অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হন সাকিব। শোয়েব মালিক ও ব্রেন্ডন কিংয়ের কাছে ৪ ছক্কা ও ১ চারে হজম করে বসেন ২৯ রান (৬, ৬, ১, ৪, ৬, ৬)!

এক ওভারেই বদলে যায় সাকিবের বোলিং ফিগার। চলমান সিপিএলে নিজের সবচেয়ে খরুচে ওভারের সাথে পান সবচেয়ে খরুচে স্পেলের তিক্ত স্বাদ (৪-০-৪৬-০)।

বল হাতে শুধু সাকিবই নন, ব্রেন্ডনদের সামনে এমন অসহায়ত্ব প্রকাশ পায় বার্বাডোজের বাকি বোলারদেরও। ব্রেন্ডনের ঝড়ো সেঞ্চুরিতে রান পাহাড়ে চড়ে গায়ানা। ১০ চার ও ১১ ছক্কায় তার করা ১৩২ রানের ইনিংসে প্রোভিডেন্সে সর্বোচ্চ সংগ্রহের দেখা পায় গায়ানা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-
গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্স: ২১৮/৩ (২০ ওভার)।
ব্রেন্ডন ১৩২*, মালিক ৩২, হেমরাজ ২৭; ওয়ালস ৪-০-৪২-২।

বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টস: ১৮৮/৮ (২০ ওভার)

কার্টার ৪৯, হেলস ৩৬, হোল্ডার ২৯; শেফার্ড ৪-০-৫০-৩।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

সিপিএলের ড্রাফট শেষে কে কোন দলে

সিপিএল খেলবেন না গেইল

সিপিএল ড্রাফটে বিপিএল মাতানো নাসুম ও রানা

‘অস্কার’ জিতলেন সাকিব!

মালিক হয়ে নিজ দলের ক্রিকেটারকে ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব!