ভক্তকে ক্যাপ উপহার দিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার মুখে ইয়াসির

0
477

বে ওভালে সিরিজের প্রথম টেস্টের চতুর্থ দিনে নিউজিল্যান্ডের এক ক্রিকেট ভক্তদের মাঝে ক্যাপ ছুঁড়ে দেন ইয়াসির শাহ। আবগের বশে করে বসা এই কাণ্ড তাকে যেমন মহানের আসনে বসিয়েছে তেমনই বেশ সমালোচনার মুখেও পড়তে হচ্ছে ইয়াসিরকে।

ভক্তকে ক্যাপ উপহার দিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার মুখে ইয়াসির

Advertisment

টেস্ট ক্যাপ নিয়ে ক্রিকেটারদের মাঝে বেশ আবেগ কাজ করে। কিংবদন্তি ক্রিকেটার স্টিভ ওয়াহ, রিকি পন্টিং একটি ক্যাপ পরেই খেলেছেন টেস্ট ক্যারিয়ার। বাংলাদেশের মুশফিকুর রহিমকেও দেখা যায় সেই অভিষেক টেস্টের ক্যাপ এখনো ব্যবহার করতে। একদিকে ক্রিকেটাররা যখন অভিষেক ক্যাপ বছরের পরে বছর সযত্নে রেখে দিচ্ছেন, অপরদিকে ইয়াসিরের সেই টেস্ট ক্যাপ ছুঁড়ে মারাকে ভালোভাবে নেননি ক্রিকেট বোদ্ধারা। তবে ভক্ত-সমর্থকদের প্রশংসায় ভাসছেন ইয়াসির।

নিউজিল্যান্ডের মাঠগুলোতে দেখা যায় সীমানা দড়ি পেরিয়ে সরাসরি মাটিতে বসেই খেলা দেখেন দর্শকরা। তেমনই এক সীমানার সামনে ফিল্ডিং করছিলেন ইয়াসির। দর্শকদের ডাকে সাড়া দিয়ে তিনি তার টেস্ট ক্যাপটি ছুঁড়ে মারেন এবং সেখান থেকেই একজন দর্শক সেটি তালুবন্দী করে বিমোহিত হয়ে যান। সেই দর্শক যেন বিশ্বাস করতে পারছিলেন না একজন ক্রিকেটারের টেস্ট ক্যাপ তিনি উপহার পেয়ে গিয়েছেন। বিস্ময়ে অভিভূত হয়েছিলেন তিনি।

এই ঘটনার পরে ইন্টারনেট দুনিয়ায় ইয়াসিরকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন অনেকেই। তবে সমালোচনা ও বিতর্কের মুখেও পড়তে হয়েছে তাকে। পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার রশিদ লতিফ ব্যাপারটাকে একদমই ভালোভাবে দেখেননি। তিনি বলেন, ‘একজন খেলোয়াড় তার খেলোয়াড়ি জীবনে ক্যাপ বা ব্লেজার কাউকে দিতে বা বিক্রি করতে পারেন না। এটা কেবল জাদুঘরেই দেওয়া যেতে পারে। এটা তো জাতীয় রং।’

নিউজিল্যান্ডের অলরাউন্ডার জেমস নিশামও এই ব্যাপারটা মোটেই ভালোভাবে নিতে পারেননি। তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, এমনটা করা মোটেও উচিত না। তিনি বলেন, ‘এটা কেবল একটা ক্যাপ নয়, এটা দেশকে প্রতিনিধিত্ব করার প্রতীক।’