Score

মধ্যাঞ্চলকে খেলায় ফেরালেন শহিদুল-মজিদ

প্রথম ইনিংসে ফরহাদ রেজার বোলিং তোপে পড়ে মাত্র ১১৮ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল মধ্যাঞ্চল। তবে বোলিংয়ে শহিদুল ইসলামের পাঁচ উইকেটের সুবাদে পূর্বাঞ্চলকে বড় লিড নিতে দেয়নি তারা। দ্বিতীয় ইনিংসে পিনাক ঘোষ এবং আব্দুল মজিদের জোড়া অর্ধশতকে ভর করে ম্যাচে ফিরেছে মধ্যাঞ্চল।

মধ্যাঞ্চলকে খেলায় ফেরালেন শহিদুল-মজিদ

দিনের শুরুতে পূর্বাঞ্চলের রান ছিল ১ উইকেটে ৩৭। দ্বিতীয় দিন সকালে মধ্যাঞ্চলকে উইকেট এনে দেন সালাউদ্দিন শাকিল। তার বলে বিদায় নেনে ওপেনার শামসুর রহমান। ২৬ রান করেন তিনি।

Also Read - জুনায়েদ-নাঈমের ব্যাটে লড়ছে উত্তরাঞ্চল

এরপর শুরু হয় শহিদুল ইসলামের ঝলক। এবারের বিসিএলে নিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নামা মোহাম্মদ আশরাফুলকে প্রথম শিকারে পরিণত করেন তিনি। রানের খাতা খোলার আগেই এলবিডব্লিউ হন আশরাফুল।  বেশিক্ষণ টিকেননি তাসামুল হক। ৪ বলে ৫ রান করে রানআউট হন তিনি। পঞ্চম উইকেটে ৫০ রান যোগ করেন মাহমুদুল হাসান ও মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন। তাদের এ জুটি ভাঙেন শাহাদাত হোসেন। ৩৪ রান করে ফিরে যান অঙ্কন।

এরপর মাহমুদুলকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন শহিদুল। ৪১ রান করেন তিনি। ২৭ রান করা ফরহাদ রেজাকে বোল্ড করেন শহিদুল। এরপর এনামুল হক জুনিয়র ও আবু জায়েদ রাহির উইকেট নিয়ে পাঁচ উইকেত পূর্ণ করেন শহিদুল। শেষ উইকেট তুলেন সালাউদ্দিন। ১৮৬ রান করে পূর্বাঞ্চল।

দ্বিতীয় ইনিংসে মধ্যাঞ্চল দেখিয়েছে প্রথম ইনিংসের ঠিক উলটো চিত্র। ১৭ রান করে ওপেনার রাকিন আহমেদ ফিরে গেলেও ওপেনার পিনাক ঘোষ ও আব্দুল মজিদ আগলে রাখেন বাকি সময়টা। এ জুটিতে ১০৮ রান করে মধ্যাঞ্চল। প্রথম ইনিংসের চাইতে বেশি রান দ্বিতীয় ইনিংসের প্রথম দুই উইকেটেই করেছে তারা। দলীয় ১৩৯ রানের মাথায় বিদায় নিয়েছেন আব্দুল মজিদ। তার ৭৭ বলে ৬৭ রানের ইনিংসে রয়েছে ৯ চার। পিনাক অপরাজিত আছেন ৫২ রান করে।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ মধ্যাঞ্চল ১১৮/১০, প্রথম ইনিংস
শরীফুল্লাহ ২৩, পিনাক ২১, জাকের আলি ২০
ফরহাদ ৭/৩২, আবু জায়েদ ২/৩৩

পূর্বাঞ্চল ১৮৬/১০, প্রথম ইনিংস
মাহমুদুল ৪১, অঙ্কন ৩৪ , ফরহাদ ২৭
শহিদুল ৫/৬২, সালাউদ্দিন ২/৩৫

মধ্যাঞ্চল ১৩৯/২, দ্বিতীয় ইনিংস
মজিদ ৬৭, পিনাক ৫২*
আশরাফুল ১/০, হাসান ১/১৬


আরো পড়ুনঃ  “৩০০ রান টপকানো কোন ব্যাপার হবেনা’


 

Related Articles

সেঞ্চুরি করে অপরাজিত আশরাফুল

ইস্ট জোনকে জয়ের স্বপ্ন দেখাচ্ছেন আশরাফুল

শামসুরের শতকে প্রথম দিন পূর্বাঞ্চলের

পরিণত হওয়ার আগে নয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

“শুভেচ্ছা বাংলাদেশ, আমি শোয়েব মালিক!“