মার্শকে নয়, কোহলিকে তিরস্কার করলে মেনে নিতেন হেড!

0
1164

পাছে লোকে কিছু বলে! তারকাদের ক্ষেত্রে ব্যবহৃত জনপ্রিয় এক প্রবাদ। তবে বিরাট কোহলির সমালোচনা করতে যেন এখন আর আড়াল-আবডালের ধার ধারা হচ্ছে না। সংবাদমাধ্যমের সামনেই এখন চলে কোহলির নিন্দা!

মার্শকে নয়, কোহলিকে তিরস্কার করলে মেনে নিতেন হেড!

বিতর্ক যেন বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যানের পিছুই ছাড়ছে না। অপ্রত্যাশিত আচরণ না করার প্রতিশ্রুতি দিয়েও অজি ক্রিকেটারদের সাথে চড়া মেজাজ দেখিয়েছিলেন পার্থ টেস্টে। সাম্প্রতিক সময়ে ভক্তের সাথে বাজে আচরণের বিষয়টি তো আছেই। সমালোচকদের পর কোহলিকে এবার হজম করতে হচ্ছে প্রতিপক্ষ দলের ক্রিকেটারদের খোঁচাও।

Advertisment

মেলবোর্নে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া ও সফরকারী ভারতের মধ্যকার বক্সিং ডে টেস্টের প্রথম দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে আসেন অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার ট্রাভিস হে?ড। এ সময় কথাপ্রসঙ্গে উঠে আসে মাঠে অলরাউন্ডার মিচেল মার্শকে দর্শকদের তিরস্কার করার কাহিনী। একাধিকবার দুয়ো হজম করা সতীর্থের দিকে ইঙ্গিত করে হেডের মন্তব্য, এমনটি কোহলির সাথে ঘটলে অস্বাভাবিক ছিল না, কিন্তু মার্শের সাথে এমন ঘটনা মেনে নেওয়ার মত নয়!

হেড বলেন,

দর্শকরা আজ যা করলো তা মোটেও কাম্য নয়আমরা হয়তো কোহলির ক্ষেত্রে এমনটা আশা করি যে আমাদের দর্শকরা তাকে দুয়ো দেবেকিন্তু মিচ মার্শের ক্ষেত্রে এমনটা করার কারণ খুঁজে পাই না।’

মেলবোর্নে পিটার হ্যান্ডসকম্বের রয়েছে বেশ জনপ্রিয়তা। কিন্তু সেই হ্যান্ডসকম্বকে বসিয়ে বক্সিং ডে টেস্টে একাদশে নেওয়া হয়েছে মার্শকে। এটা মেনে নিতে পারেননি অস্ট্রেলিয়ার স্থানীয় সমর্থকরা। তাই ঝাল মিটিয়েছেন মার্শকে দুয়ো শুনিয়ে।

অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটারকে দর্শক কর্তৃক তিরস্কার কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না হেড। তিনি বলেন, আজ সে কী দারুণ বোলিংই না করেছেআমার তো মনে হয় সে কঠিন চাপে রেখেছিল ব্যাটসম্যানদের এবং এমন ব্যাটিংবান্ধব কন্ডিশনেও দারুণ লড়াই করেছেআমার মনে হয় না অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে কোনো অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার দুয়ো শোনাটা সমীচীন।’

আরও পড়ুন: পোলকের রেকর্ড ভেঙে সবার উপরে স্টেইন