মাশরাফির কাছে ১৮৭ বড় লক্ষ্য, তবে তাড়া করার মতই!

0
757

ষষ্ঠ বিপিএলের প্রথম দিকে রান খরার দুর্নাম ছিল। সেই দুর্নাম পুরোপুরি ঘুচে গেছে চট্টগ্রামে এসে। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের চট্টগ্রাম পর্বে যেন রানের ফোয়ারা দেখছেন দর্শকরা। প্রতি ম্যাচেই রান হচ্ছে, হচ্ছে চার-ছক্কার বৃষ্টি। শতকের মত কঠিন বিষয়ও যেন এই মাঠে সহজ।

মাশরাফির কাছে ১৮৭ বড় লক্ষ্য, তবে তাড়া করার মতই!

বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে অধিনায়ক ও বিপিএলে রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা মনে করেন, সাগরিকা স্টেডিয়ামের এই উইকেটে ১৮৭ বড় লক্ষ্য হলেও সেটি তাড়া করা যাবে না- এমনটি নয়।

Advertisment

প্রথমে ব্যাট করে এদিন রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে ১৮৬ রান সংগ্রহ করে ঢাকা ডায়নামাইটস। তবে এই লক্ষ্যে পৌঁছাতে কোনো কষ্টই হয়নি বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। শুরুতে ক্রিস গেইল ও রাইলি রুশোকে হারিয়ে দল চাপে পড়ে গেলেও অ্যালেক্স হেলস ও এবি ডি ভিলিয়ার্সের ব্যাট ত্রাতা হয়ে রংপুরকে পৌঁছে দেয় জয়ের বন্দরে।

ম্যাচ শেষে জয়ী দলের অধিনায়ক হিসেবে আনুষ্ঠানিক আলাপচারিতায় মাশরাফি বলেন, আজকের ম্যাচে উইকেট বেশ ভালো ছিল। বোলাররা সত্যিই দারুণ বল করেছে। আমরা জানতাম ১৮৭ বড় একটি লক্ষ্য। তবে এমন একটি উইকেটে আপনি ৩-৪ ওভার উইকেটে ব্যাটিং করে কাটাতে পারলে বল দারুণভাবে ব্যাটে আসতে থাকে।’

ব্যাটসম্যানদের তো বটেই, বোলার ও ফিল্ডারদের কৃতিত্ব দিয়ে মাশরাফি বলেন, এই উইকেটে অবশ্য ২০০ রানও তাড়া করার মত, যদি আপনি প্রথম ছয় ওভারে মারকুটে ব্যাটিং করতে পারেন। এই ফরম্যাটে ফিল্ডিং বেশ গুরুত্বপূর্ণ অংশ। বোলাররা একটি নির্দিষ্ট পরিকল্পনা নিয়ে বোলিং করেছে এবং ফিল্ডাররা সেই অনুযায়ী ভালো পারফর্ম করেছে।’

আসরে ভালোভাবে শুরু করতে না পারলেও ধীরে ধীরে ছন্দ খুঁজে পাওয়া রংপুর সোমবারের এই জয়ে উঠে গেছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। এখন পর্যন্ত ১০টি ম্যাচ খেলে দলটি জয় পেয়েছে ৬টি ম্যাচেই। অপরদিকে ৯ ম্যাচ খেলে ৫টি ম্যাচে জিতছে ঢাকা ডায়নামাইটস।