Scores

এক নয় মাশরাফির তিন ইনজুরি

ইনজুরি যেন পিছু ছাড়ছে না বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের উপর! তামিম, সাকিব, মুশফিকের পর এবার ইনজুরিতে বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। এশিয়া কাপ থেকে তিন ইনজুরি সঙ্গী করে দেশে ফিরেছেন মাশরাফি। 

এশিয়া কাপের ফাইনালে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি; @গেটি ইমেজ

 

দেশের ক্রিকেটের পাঁচ সিনিয়র ক্রিকেটারের মধ্যে চারজনই এখন ইনজুরিতে। এশিয়া কাপের ফাইনালে শেষ বলে স্বপ্নভঙ্গের আগে প্রথম ম্যাচেই তামিমের এশিয়া কাপ শেষ হয়ে যায়। হাতে আঘাত পেয়ে দ্বিতীয় ওভারেই মাঠ ছেড়েছিলেন তামিম ইকবাল। এদিকে হাতের ইনজুরি নিয়েই এশিয়া কাপে খেলতে গিয়েছিলেন সহ-অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। কিন্তু অবস্থা ভয়াবহ হওয়ায় টুর্নামেন্টের মাঝপথে দেশে ফিরে করতে হয় অস্ত্রপচার। অন্যদিকে এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচের আগে হঠাত পিঠের ইনজুরিতে পড়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। সেই ইনজুরি সঙ্গী করেই এশিয়া কাপ শেষ করেছেন মুশফিক।

এই তিনজনের সাথে ইনজুরিতে পড়েছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে রুবেলের বলে শোয়েব মালিকের দুর্দান্ত উড়ন্ত ক্যাচ নিয়েছিলেন মাশরাফি। সাথে সাথে ডান হাতের কনিষ্ঠা থেকে রক্ত পড়তে দেখা যায়। এরপর ব্যান্ডেজ করে মাঠে নামেন তিনি। ম্যাচের পর আর এক্স-রে করান নি, সেই ইনজুরি নিয়েই ভারতের বিপক্ষে ফাইনালে খেলেছিলেন মাশরাফি।

Also Read - টুইট বার্তায় রিয়াদের বিশাল ছক্কার স্মৃতিচারণ


দেশে ফিরে জানিয়েছিলেন, এখনও এক্স-রে করানো হয়নি। একদিন পর পরীক্ষা করানো হয়েছে। সেটাতে মিলেছে দুঃসংবাদ। ভেঙ্গে গেছে মাশরাফির ডান হাতের কনিষ্ঠা, ব্যান্ডেজ করা হয়েছে। ঠিক হতে সময় লাগবে অন্তত দুই সপ্তাহ।

হাতের এই ইনজুরি বাদেও আছে আরও দুই ইনজুরি। ডান পায়ের উরুর মাংসপেশী ছিঁড়ে গেছে। এটা ঠিক হতে ১০ দিন লাগতে পারে। পাশাপাশি সেই উরুতে টিউমারের শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

চলতি মাসেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ শুরু হবে টাইগারদের। সেই সিরিজে মাশরাফি থাকবেন কিনা সেটা জানার জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

[আরও পড়ুনঃ যুব এশিয়া কাপের সেমিফাইনাল লাইন-আপ চূড়ান্ত]

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
Tweet 20
fb-share-icon20

Related Articles

মাধ্যমিকের প্রশ্নপত্রে নিজের নাম দেখে কৃতজ্ঞ তামিম

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

এই মিরাজ অনেক আত্মবিশ্বাসী

মিঠুনের ‘মূল চরিত্রে’ আসার তাড়না

‘আঙুলটা আর কখনো পুরোপুরি ঠিক হবে না’