মুক্তারের এক ওভারে ‘৫’ ছক্কায় ‘৩৩’ রান

এমন দিন আর কখনই চাইবেন না মুক্তার আলী। বাংলাদেশি পেসার মারাঠা অ্যারাবিয়ান্সের হয়ে খেলছেন আবুধাবি টি-টেন লিগে। প্রথম ম্যাচে আলো ছড়ালেও দ্বিতীয় ম্যাচে মুক্তার খরুচে বোলিং প্রদর্শন করেছেন।

মুক্তারের এক ওভারে '৫' ছক্কায় '৩৩' রান
টি-টেনে মুক্তার আলীর ভুলে যাওয়ার মত দিন। ফাইল ছবি

দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ জাতীয় দল এখন বাংলাদেশ সফরে। তবে দলের সাথে সফরে আসেননি এভিন লুইস। লুইস অবশ্য ঠিকই খেলার মাঝে আছেন। টি-টেন লিগে খেলছেন দিল্লী বুলসের হয়ে। শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) তিনিই চড়াও হয়েছিলেন মুক্তারের উপর।

Advertisment

অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের ২২ বলে ৩৫ রানের অপরাজিত ঝড়ো ইনিংসের পরও মারাঠার দলীয় সংগ্রহ হয়েছিল মাত্র ৮৭। সহজ লক্ষ্যে খেলতে নেমে মুক্তার এদিন বল করতে আসেন ৫ম ওভারে। এর আগে সোহাগ গাজী, প্রবীণ তাম্বেরা বল হাতে ভালো করতে পারেননি। আগের ম্যাচে ভালো করা মুক্তারের দিকেই তাই তাকিয়ে ছিল দল।

লুইস তখন ১০ বলে ২৩ রান নিয়ে ব্যাট করছেন। ৬ ওভারে দিল্লীর প্রয়োজন ৩২ রান। লুইস মোসাদ্দেকের প্রথম বলে স্লোয়ারকে বানান ছক্কা, লং ওদের উপর দিয়ে। পরের বলও ছক্কা হয় স্কয়ার লেগ এলাকা দিয়ে। তৃতীয় বলে মোসাদ্দেকের বল থেকে দুই রান নিয়ে স্ট্রাইক ধরে রাখেন লুইস। চতুর্থ ও পঞ্চম বলে মিড উইকেট দিয়ে আরও দুইটি ছক্কা হাঁকান। পরাজয় যখন নিশ্চিত, তখন ওয়াইড করে বসেন মুক্তার। ওভারের শেষ বল আবার করতে হয়, সেই বলে এক্সট্রা কভারে হাঁকানো ছক্কায় দলের জয় নিশ্চিত করেন লুইস।

মুক্তারের ৩৩ রান খরচের দিনে ১৬ বলে ৫৫ রান করে অপরাজিত থাকেন ২টি চার ও ৭টি ছক্কা হাঁকানো ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান। ১২ বলে ১৮ রান করে ৯ উইকেটের জয়ের সাক্ষী হিসেবে মাঠ ছাড়েন রবি বোপারাও।