মুসলিম ও নারীদের নিয়ে বৈষম্যমূলক টুইটের কারণে শাস্তির মুখে রবিনসন

0
826

অভিষেক টেস্টে বল হাতে রাঙানোর চেয়ে নয় বছর আগে তাঁর টুইট নিয়ে বেশি চর্চা হচ্ছে। ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড ইতিমধ্যে রবিনসের টুইটের বিরুদ্ধে তদন্তে নেমেছে। গুঞ্জন রয়েছে বর্ণ ও লিঙ্গবৈষম্যমূলক শাস্তির মুখে ইংলিশ পেসার ওলি রবিনসন।

অভিষেক টেস্টের প্রথম ইনিংসের চার উইকেট লাভ করেন রবিনসন। ছবিঃ এএফপি

লোকে বলে অভিষেক টেস্ট ক্রিকেটারদের বেশ স্মরণীয় হয়ে থাকে। আর যদি অভিষেকটা ক্রিকেটের মক্কা খ্যাত, লর্ডসে হয় সেটি ক্রিকেটারদের কাছে আরও বিশেষ। ঠিক তেমনি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে লর্ডসে অভিষেক হয়েছে ইংলিশ পেসার রবিনসনের। প্রথম ইনিংসেই বল হাতে উজ্জ্বল ছিলেন তিনি।

Advertisment

বল হাতে ৭৫ রান দিয়ে চার উইকেট নিয়ে নিয়েছেন তিনি। অভিষেক ম্যাচে এমন পারফরম্যান্সের পর মাঠের রবিনসনকে নিয়ে না যতটা চর্চা হওয়ার কথা ছিল তারচেয়ে বেশি হচ্ছে মাঠের বাইরের কর্ম নিয়ে। হুট করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, টুইটারে রবিনসনের করা নয় বছর আগের টুইট নিয়ে বেশ বিতর্ক তৈরি হয়েছে।

ওই টুইটগুলোতে মুসলিম এবং নারীদের নিয়ে বৈষম্যমূলক টুইট করে বিপাকে পড়েছেন তিনি। ইতোমধ্যে ক্ষমা চেয়ে একটি বিবৃতিও দেন রবিনসন। তিনি বলেন,

“আমি নিজের এমন মন্তব্যের জন্য খুবই লজ্জিত। আমার পরিস্থিতি তখন যেমনই হোক, বিচার বিবেচনা না করে এমন দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্যের কোনওরকম ব্যাখা হয় না। সেই সময় থেকে আমি মানুষ হিসেবে অনেকটাই পরিপক্ক হয়েছি এবং আমি নিজের ভুলের জন্য লজ্জিত। আমার কথায় আঘাতপ্রাপ্ত সকলের কাছে আমি ক্ষমা চাইছি।”

এমন ঘটনার পর বেশ বিব্রত ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। রবিনসনের টুইট নিয়ে তদন্তের কথা জানানো হয়েছে ইসিবি থেকে। এদিকে ইংলিশ দৈনিক ‘দ্য টেলিগ্রাফের’ খবর বর্ণ এবং লিঙ্গবৈষম্যের টুইটের কারণে শাস্তির মুখে পড়তে যাচ্ছেন তিনি। শাস্তি হিসেবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাদ পড়তে চলেছেন এই ডানহাতি পেসার।

ইংল্যান্ড দলের ব্যাটিং কোচ গ্রাহাম থ্রোপ বলেন এই ঘটনার পর ড্রেসিংরুমে তাঁর সতীর্থদের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে রবিনসনের সেই সাথে বিতর্কিত টুইটের কারণে বিশ্বের কাছেও ক্ষমা চাইতে হবে তাঁকে। তবে তাঁর বিরুদ্ধে ইসিবি কেমন ব্যবস্থা নেয় সেটিই এখন দেখার বিষয়।