মেহেদীকে ওয়ান ডাউনে খেলানোর কারণ ব্যাখ্যা করলেন রিয়াদ

বাংলাদেশ দলের তিন নম্বর ব্যাটিং পজিশন নিয়ে ‘মিউজিক্যাল চেয়ার’ খেলা চলছে অনেকদিন ধরেই। টি-টোয়েন্টিতে এই পজিশনে একেক সময় খেলছেন একেকজন। শুক্রবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে এই পজিশনে দেখা গেছে শেখ মেহেদী হাসানকে।

মেহেদীকে ওয়ান ডাউনে খেলানোর কারণ ব্যাখ্যা করলেন রিয়াদ
শেখ মেহেদী হাসান। ফাইল ছবি

তরুণ এই অলরাউন্ডার ঘরোয়া ক্রিকেটে টপ অর্ডারে ব্যাটিং করলেও জাতীয় দলে সাধারণত ফিনিশারের ভূমিকা নিতে হয় তাকে। অবশ্য ব্যাট হাতে কিছু করার সুযোগও হরহামেশা পান না। সাকিব আল হাসান থাকা সত্ত্বেও প্রথম ম্যাচে ওয়ান ডাউনে নেমেছিলেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, ৪ ব্যাটসম্যানকে নামতে হলেও সে ম্যাচে ক্রিজে নামেননি সাকিব। দ্বিতীয় ম্যাচে পরাজয় বরণ করায় স্বভাবতই কিছু প্রশ্ন উঠল ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে।

Advertisment

ম্যাচ শেষে রিয়াদ সেই প্রশ্নগুলোর উত্তর জানালেন, দিলেন ব্যাটিং অর্ডারের ব্যাখ্যা।

তিনি বলেন, ‘আগের ম্যাচে লিটন আমাদের ওপেনার ছিল, ও ইঞ্জুরড হয়ে যায়। লিটন তো ইদানীং খুব ভালো ব্যাটিং করছিল। দুর্ভাগ্যজনকভাবে ইঞ্জুরিতে পড়েছে। অবশ্যই ওকে টপ অর্ডারে মিস করেছি। সৌম্য ও নাঈম ভালো একটি পার্টনারশিপ গড়েছিল। কোচ বলেছিলেন ডানহাতি বাঁহাতি কম্বিনেশন থাকলে ভালো হবে। আজকের ম্যাচেও দলের পরিকল্পনা ওরকমই ছিল।’

নাঈম শেখের বিদায়ের পর সৌম্য সরকারের সাথে ডানহাতি-বাঁহাতি কম্বিনেশন মিলানোর লক্ষ্যেই ওয়ান ডাউনে পাঠানো হয় মেহেদীকে। যদিও মেহেদী দলকে সাফল্য এনে দিতে পারেননি, এদিন টপ অর্ডার ছিল ম্লান।

রিয়াদ বলেন, ‘মেহেদী ঘরোয়া ক্রিকেটে টপ অর্ডারে ব্যাটিং করে, তাই তাকে ওয়ান ডাউনে সুযোগ দেওয়া হয়েছে। ব্যাটিং গ্রুপ হিসেবে আজ আমরা ক্লিক করতে পারিনি। কোনো বড় পার্টনারশিপ করতে পারিনি। ১৬০ রানেরও বেশি তাড়া করতে গেলে ভালো শুরু গুরুত্বপূর্ণ। তা করতে পারিনি বলেই ফলাফল পক্ষে আসেনি।’

ব্যাটসম্যানরা তাড়াহুড়া করে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসায় রিয়াদ অবশ্য অসন্তুষ্ট নন। তার ভাষায়, ‘ব্যাটিং এপ্রোচ নিয়ে আমি হতাশ নই। ১৬০ রান তাড়া করতে গেলে ঝুঁকি নিতেই হবে। দ্রুত ২-৩ উইকেট হারিয়ে ফেলায় চাপে ছিলাম। এরপরও উইকেট হারাচ্ছিলাম। একটা ৩০ আর একটা ৫০ রানের পার্টনারশিপ হলে জয়ের ভিত তৈরি হয়ে যেত।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।