Scores

যুবাদের বাস্তবতা স্মরণ করিয়ে দিলেন ডমিঙ্গো

বিশ্বকাপজয়ী বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৯ দলটির প্রশংসা এখন সবার মুখে মুখে। বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোচ রাসেল ডমিঙ্গোও প্রশংসা করেছেন দলটির। তবে জাতীয় দলে আসতে যে এখনো কঠিন পথ পাড়ি দিতে হবে তা মনে করিয়ে দিয়েছেন তামিম-শরিফুলদেরকে।

বাংলাদেশ জাতীয় দল যখন ফর্মহীনতায় ভুগে টানা হারের বৃত্তে ঘুরছে, তখনই বিশ্বকাপ জয় করে এনে ক্রিকেটপাড়া দখলে নিয়ে নিয়েছে যুবদল। এই দলের ক্রিকেটারদেরকে জাতীয় দলে নিয়ে নেয়ার জন্যও বলছেন অনেকে। কিন্তু সবকিছু যে এতো সহজ না সেটা বললেন ডমিঙ্গো। তার দেশ থেকেই বিশ্বকাপ জয় করে আনা দলটির জন্য উচ্ছ্বাস প্রকাশও করেছেন তিনি।

Also Read - অনন্য রেকর্ডের দ্বারপ্রান্তে টেলর


আকবর আলির দলের প্রশংসা করে ডমিঙ্গো বলেন, ‘বড় একটা অর্জন। এই দলটির পারফরম্যান্সে আমি গর্ববোধ করছি। দলটির কোচরা অনেক পরিশ্রম করেছে কিন্তু ছেলেরা যা করেছে তা অনেক বড় ব্যাপার, অতুলনীয়।’

কিন্তু তিনি যে যুবাদের খুব তাড়াতাড়িই যুবাদের জাতীয় দলে দেখতে চান না সেটার ইঙ্গিতও পাওয়া গেছে তার কথায়। অবশ্যই ডমিঙ্গোর কথার যুক্তি আছে। কারণ আগেও অনেক ক্রিকেটারকে দেখা গেছে, খুব দ্রুত আন্তর্জাতিক অভিষেক হওয়ার পরে আবার দ্রুতই এই আঙ্গিনা থেকে হারিয়েও গিয়েছেন। তাইতো যুবাদের এভাবে হারানোর পক্ষে নই তিনি।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) জানিয়েছে, এই দলটিকে আগামী ২ বছর প্রশিক্ষণের মধ্যে রাখা হবে। প্রশিক্ষণকালীন দুই বছর সময়টাকে পরিকল্পনা করে ও সঠিকভাবে কাজে লাগানোর পরামর্শ দিয়েছেন মুশফিক-তামিমদের প্রধান কোচ। এই যুবাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে অনেক ম্যাচ খেলার পরামর্শও দিয়েছেন ডমিঙ্গো।

ডমিঙ্গোর কণ্ঠে, ‘নিঃসন্দেহে তারা অনেক প্রতিভাবান খেলোয়াড়। কিন্তু অনূর্ধ্ব ১৯ ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মধ্যে অনেক ব্যবধান, অনেক পার্থক্য। ভালো পর্যায়ে উঠতে তাদের এখনো অনেক দূর যেতে হবে। এই যুবাদের সঠিকভাবে কাজে লাগাতে ভালোভালে পরিকল্পনা করতে হবে। আগামী দুই বছর ভালোভাবে কাজে লাগাতে হবে। ঘরোয়া ক্রিকেটেও তাদেরকে অনেক ভালো খেলতে হবে।’

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

‘সাফল্যের কোনও শর্টকাট পথ হয় না’

অনেকেই সমর্থন পেয়ে জাতীয় দলে থেকে যান: ইমরুল

‘ক্রিকেট ম্যাচগুলো সব চলচ্চিত্র, মাফিয়ারা নিয়ন্ত্রণ করে’

রোনালদো-মেসির আয় কমলেও বেড়েছে কোহলির

ধোনির জন্য বিশ্বকাপ ফাইনালে ‘দুইবার’ টস করতে হয়