Score

রশিদের চোখে ‘প্রেরণা ও তৃপ্তিদায়ক’ পারফরম্যান্স

বাংলাদেশের বিপক্ষে জয় পাওয়া নিঃসন্দেহে আফগানিস্তানের ক্রিকেটের বড় এবং স্মরণীয় ঘটনা হয়ে থাকে। দুই দলের অভিজ্ঞতা কিংবা কাগজে-কলমে শক্তিমত্তার ফারাক তো চোখে পড়ার মতই। তবুও আফগানদের চৌকস ক্রিকেট সম্প্রতি কেড়ে নিচ্ছে সব আলো। সেই চৌকস ক্রিকেট দিয়েই বৃহস্পতিবার টাইগারদের বিপক্ষে বড় জয় পেয়েছে আইসিসির নতুন সদস্য দেশটি, যেখানে ছিল রশিদ খানের অগ্রণী ভূমিকা।

রশিদের চোখে ‘প্রেরণা ও তৃপ্তিদায়ক’ পারফরম্যান্স

ম্যাচের দিনই রশিদ পা দিয়েছেন ২০-এ। জন্মদিনে দলকে এবং দেশকে উপহার দিয়েছেন দুর্দান্ত এক জয়। স্বীকার করলেন, জন্মদিনে এর চেয়ে ভালো পারফরম্যান্স হতে পারত না। সেই সাথে জানালেন, বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো করলে পান প্রেরণা ও তৃপ্তি।

ম্যাচ শেষে রশিদ বলেন, ‘জন্মদিনে এর চেয়ে ভালো পারফরম্যান্স আশা করতে পারতাম না। আমার জন্য বিশেষ দিন ছিল, পারফরম্যান্সও বিশেষই হয়েছে।’

Also Read - ফখর জামানের কঠোর সমালোচনায় গাভাস্কার

বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো করাকে ‘কঠিন’ আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন-

‘বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো করা কঠিন, তারা খুব ভালো দল। তারা দেশে স্পিন খেলে অভ্যস্ত। বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো করা তাই প্রেরণা ও তৃপ্তিদায়ক।’

বোলার সত্তার পাশাপাশি এদিন পুরোদস্তুর ব্যাটসম্যান হয়ে উঠেছিলেন রশিদ। দারুণ ব্যাট করে দলকে এনে দিয়েছিলেন জয়ের ভিত। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এমন ম্যাচে ফিনিশিং খুব গুরুত্বপূর্ণ। শেষ পর্যন্ত ব্যাট করে যত বেশি সম্ভব রান করতে চেয়েছিলাম। আমাদের বোলিং বিবেচনায় ২৫০ রান যথেষ্ট, এটা জানতাম।’

প্রযুক্তির অগ্রগতির সাথে সাথে রশিদের মত ভালো বোলারদের বোলিং নিয়ে বিশ্লেষণ বাড়ছে। যদিও এতে ফর্মে পড়ছে না ভাঁটা। প্রযুক্তি নিয়ে অবশ্য মোটেও মাথা ঘামান না আফগান বিস্ময় বালক, ‘ভিডিওসহ যেসব প্রযুক্তি আসছে আমি তা উপভোগ করি। জুম করে ভিডিও দেখা হলেও মাঠে তো ব্যাটসম্যানের চোখে ক্যামেরা লাগানো থাকে না। জুম করে ভিডিওতে দেখলেও মাঠে সে খালি চোখেই দেখে। আমার বোলিংয়ের গতি আমাকে বাড়তি সুবিধা দেয়। ভিডিওকে খুব বেশি গুরুত্ব দেই না আমি। ব্যাটসম্যানরা যে এসব দেখে সেটা আমি উপভোগ করি। আমি নিজেও শিখি আর নেতে সবসময়ই আলাদা কিছু অনুশীলন করছি।’

আরও পড়ুন: মুশফিক-মুস্তাফিজকে নিয়েই ভারতের বিপক্ষে লড়বে বাংলাদেশ

Related Articles

মেন্ডিস-ম্যাথিউস শেখালেন— ধৈর্য কাকে বলে!

সহজেই জিতল অস্ট্রেলিয়া

যে কারণে স্যালুট দিচ্ছিলেন কটরেল

দিনটিই বাংলাদেশের ছিল না!

“ক্যারিবিয়াতেও কিন্তু আমরা প্রথম ম্যাচ জিতেছিলাম”