Score

রান পাহাড় টপকে সৌম্য-মিঠুনদের সিরিজ জয়

তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ও সিরিজনির্ধারণী টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মোহাম্মদ মিঠুনের ঝড়ো ৩৯ বলের ৮০ রানের ইনিংসের সাথে সৌম্য সরকারের তাণ্ডব ছড়ানো ৪৭ রানের ইনিংসে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড উলভসের দেওয়া রান পাহাড় টপকে ৬ উইকেটের জয়ে ২-১ ব্যবধানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতে নিল সফরকারী বাংলাদেশ ‘এ’ দল।

মিঠুন-সৌম্যর ব্যাটে বাংলাদেশের সিরিজ জয়

সিরিজ জয়ের মিশনে বড় লক্ষ্যমাত্রায় ব্যাট করতে নামার আগে গেম পরিকল্পনায় পরিবর্তন এনে সৌম্যর সাথে মিঠুনকে ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে পাঠায় সফরকারী দলের টিম ম্যানেজমেন্ট। সিদ্ধান্ত যে ভুল ছিল না ২৩ বলে ৫ চার ও ৫ ছক্কায় অর্ধশতক তুলে নিয়ে তারই যেন প্রমাণ দেন ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান।

Also Read - মিঠুনের অর্ধশতক, সৌম্যর ৩ রানের আক্ষেপ

উদ্বোধনী জুটিতে ১১৭ রান যোগ করেন এ দুই ব্যাটসম্যান। অর্ধশতক পেরিয়ে ব্যাটে ঝড় তুলে আরও ভয়ঙ্কর রুপ ধারণ করেন মিঠুন। বিপরীতে ছন্দের সাথে ঝড়ো গতিতে ব্যাট করতে থাকেন সৌম্যও। তবে বিপত্তি ঘটে অর্ধশতক থেকে ৩ রান দূরে থাকতে গেটকাট’কে উড়িয়ে মারতে গেলে। পোর্টারফিল্ডের হাতে তালুবন্দী হলে সমাপ্ত হয় তার ২ চার ও ৪ ছয়ে করা ৩০ বলের ৪৭ রানের ইনিংসের।

 

এরপর ক্রিজে এসে থিতু হতে পারেননি নাজমুল হাসান শান্ত। ৪ বলে ৬ রান করে লিটলের বলে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরেন তিনি। এর কিছুক্ষণ পর ছন্দপতন ঘটে মোহাম্মদ মিঠুনেরও। এবারও বাধা হয়ে সফরকারীদের ইনিংসে বিপত্তি ঘটান গেটকাট। ৩৯ বলের দূর্দান্ত ৮০ রানের ইনিংস খেলে আউট হলে ১৩৯ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে সফরকারীরা।

সিরিজ-নির্ধারণী ম্যাচে জয়ের পথে 'এ' দল।

৭ চার ও ৬ ছক্কায় মিঠুনের এমন বিধ্বংসী ইনিংস থেকে আত্মবিশ্বাস নিয়ে এরপর লড়াই চালিয়ে চান জাকির ও আল-আমিন। জাকির ১৩ রানের ইনিংস খেলে দলীয় ১৬২ রানে গেটকাটের ফাঁদে পা দিলে মুমিনুলকে সাথে নিয়ে দলকে জেতানোর বাকি কাজটুকু সাড়েন আল-আমিন। শেষ পর্যন্ত আল-আমিন ১৩ বলে ২১ রানে ও মুমিনুল ৬ বলে ১১ রান করে অপরাজিত থাকেন।

আইরিশ বোলারদের মধ্যে ৩৬ রান খরচায় গেটকাট তিনটি ও ৩ ওভার বল করে ৪০ রান দিয়ে একটি উইকেট লাভ করেন লিটল।

এর আগে বৃষ্টিবিঘ্নিত কার্টেল ওভারের ম্যাচে পোর্টারফিল্ড ও সিমি সিংয়ের অর্ধশতকে চড়ে নির্ধারিত ১৮ ওভার শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৮৩ রানের বড় সংগ্রহের দেখা পেয়েছে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড উলভস। স্বাগতিকদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৮ রান আসে পোর্টাফিল্ডের ব্যাট থেকে। তাছাড়া অর্ধশতকের দেখা পাওয়া সিমি সিং শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকে করেন ৭ চার ও ২ ছক্কায় করা ৪১ বলে মূল্যবান ৬৭ রান।

বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে বল হাতে সবচেয়ে সফল ছিলেন সাইফউদ্দিন। নিজের কোটার ৪ ওভার থেকে ২৮ রান নিয়ে তুলে নিয়েছেন প্রতিপক্ষের সর্বোচ্চ চারটি উইকেট। বাকি বোলারদের মধ্যে শরিফুল নিজের ঝুলিতে জমা করেন একটি উইকেট।

স্কোরকার্ড-
আয়ারল্যান্ড উলভস: ১৮ ওভারে ১৮৩ উইকেটে রান।
থম্পসন ১২ (৯), ডেলানি ৯ (১২), পোর্টারফিল্ড ৭৮ (৩৯), বালবার্নি ১ (২), সিমি ৬৭ (৪১)*, গেটকাট ৫ (৭), টাকার ০ (০)*; সাইফউদ্দিন ৪-০-২৮-৪, শরিফুল ৩-০-৪১-১, তাইজুল ৪-০-৩০-০, খালেদ ৪-০-৩৭-০, সৌম্য ২-০-২৩-০।

বাংলাদেশ ‘এ’ দল: ১৬.৫ ওভারে ৪ উইকেটে ১৮৭ রান।
মিঠুন ৮০ (৩৯), সৌম্য ৪৭ (৩০), শান্ত ৬ (৪), জাকির ১৩ (৯), আল-আমিন ২১ (১৩)*, মুমিনুল ১১ (৬)*; গেটকাট ৪-০-৩৬-৩, লিটন ৩-০-৪০-১।

ফলাফল: বাংলাদেশ ‘এ’ দল ৬ উইকেটে জয়ী।
সিরিজ: বাংলাদেশ ২-১ ব্যবধানে সিরিজ বিজয়ী।


আরও পড়ুনঃ ব্যানক্রফটের নতুন ‘ঘর’

Related Articles

দলকে ম্যাচ জিতিয়ে খুশি মিঠুন

মিঠুনের অর্ধশতক, সৌম্যর ৩ রানের আক্ষেপ

রান তাড়ায় ‘এ’ দলের উড়ন্ত সূচনা

শেষ টি-টোয়েন্টিতেও আইরিশদের বড় সংগ্রহ

ব্যাটিংয়ে আয়ারল্যান্ড, উভয় দলের একাদশে পরিবর্তন