লিটনের ঝড়ো ‘১৭৬’ রানের ইনিংসে বাংলাদেশের রেকর্ড সংগ্রহ

0
1288

অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার শেষ ম্যাচে জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ। মাশরাফি বিদায়ে আকাশের কাঁদার দিনে রেকর্ড জুটি গড়ে নির্ধারিত ৪৩ ওভারে বাংলাদেশকে ৩২২ রানের সংগ্রহ এনে দেন দুই সেঞ্চুরিয়ান লিটন দাস ও তামিম ইকবাল। বৃষ্টি আইনে জিম্বাবুয়ের লক্ষ্য ৪৩ ওভারে ৩৪২ রান।

তামিম-লিটন ঝড়ে বাংলাদেশের রান পাহাড়
তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। ছবি- বিডিক্রিকটাইম।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শেষবারের মতো বাংলাদেশের পক্ষে টস করতে নেমে হেরে যান মাশরাফি। টস জিতে বাংলাদেশকে আগে ব্যাটিং করার জন্য আমন্ত্রণ জানান জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক শন উইলিয়ামস। স্বাগতিকদের পক্ষে দুর্দান্ত শুরু করেন তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। ৫২ বলে ৫০ রানের জুটি পূরণ করেন তারা। প্রথম ১০ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় বিনা উইকেটে ৫৩ রান।

Advertisment

৫৪ বলে ৭ চারের সাহায্যে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের অর্ধশতক তুলে নেন লিটন। ১৮.২ ওভারে বাংলাদেশের দলীয় শতরান পূর্ণ হয়। তারপরেই অর্ধশতকের দেখা পেয়ে যান তামিমও। ৩ চার ও ২ ছয়ে ৬০ বলে ৫০ রান স্পর্শ করেন এই বাঁহাতি ওপেনার।

দুই অঙ্কেই থেমে থাকেননি লিটন সিরিজের দ্বিতীয় ও ক্যারিয়ারের তৃতীয় শতক হাঁকিয়েছেন তিনি। ১১৫ বলে ১৩ চারের সাহায্যে তিন অঙ্ক স্পর্শ করেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

বাংলাদেশের ইনিংসের ৩৩তম ওভারে হানা দেয় বৃষ্টি। প্রায় পৌনে তিন ঘণ্টা পরে আবারো বল মাঠে গড়ায় এবং প্রথম বলেই থার্ডম্যানে ক্যাচ তুলে দেন লিটন; তবে ব্রেন্ডন টেলরের ব্যর্থতায় বেঁচে যান সে যাত্রায়। জিম্বাবুয়ের ফিল্ডার সাজানো নিয়ে ত্রুটি দেখিয়ে নো বলেরও আবেদন করেন লিটন। তবে আম্পায়ার তা নাকচ করে দেন। পরের ওভারেই তালুবন্দী হওয়ার পরেও নো বল হওয়ায় আবারো বেঁচে যান লিটন।

৩৭তম ওভারে যেয়ে তৃতীয় বারের মতো জীবন পান তিনি। জীবন পেয়ে লিটনের রান তোলার গতি আরও বেড়ে যায়। ব্যক্তিগত ১৪৪ রানে আবারো জীবন পান তিনি। এরমধ্যে অপরপ্রান্তে টানা দ্বিতীয় শতক তুলে নেন তামিম ইকবাল। ৯৮ বলে ৫ চার ও ৪ ছয়ে ক্যারিয়ারের ১৩তম শতকের দেখা পান এই বাঁহাতি ওপেনার।

গত ম্যাচেই তামিমের গড়া বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের ইনিংস ছাড়িয়ে যান লিটন। দ্বিশতকের স্বপ্ন দেখতে থাকা লিটন কার্ল মুম্বার বলে লং অনে ধরা পড়লে ভেঙে যায় বাংলাদেশের পক্ষে যেকোনো উইকেটে সর্বোচ্চ ২৯২ রানের জুটি। লিটন ফেরেন ১৪৩ বলে ১৭৬ রান করে। তার ঝড়ো ইনিংসে ছিল ১৬টি চার ও ৮টি ছয়।

নির্ধারিত ৪৩ ওভার শেষে বাংলাদেশ সংগ্রহ করে ৩২২ রান। তামিম অপরাজিত থাকেন ১০৯ বলে ১২৮ রানে। তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ৭টি চার ও ৬টি ছয়ে। ৪ বলে ৩ রান করে মুম্বার দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফেরেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। অভিষিক্ত আফিফ হোসেন ধ্রুব আউট হন শেষ বলে ৭ রান করে। জিম্বাবুয়ের পক্ষে ৩টি উইকেট শিকার করেন মুম্বা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ ৩২২/৩ (৪৩ ওভার)
লিটন ১৭৬, তামিম ১২৮, আফিফ ৭, রিয়াদ ৩;
মুম্বা ৩/৬৯।

জয়ের জন্য জিম্বাবুয়ের প্রয়োজন ৩৪২ রান।

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।