লিটন-তামিমের ধারে-কাছে নেই কেউ

তিন ম্যাচের সিরিজে দুই ব্যাটসম্যান অন্ততপক্ষে দুটি সেঞ্চুরি করেছেন- এমন দৃশ্য ক্রিকেট বিশ্ব দেখেছিল একবারই। ২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স ও হাশিম আমলা এই কীর্তি গড়েছিলেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। সেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে নতুন করে কীর্তি গড়া লিটন কুমার দাস ও তামিম ইকবাল সিরিজে সংগ্রহ করেছেন কাছাকাছি সংখ্যক রান।

লিটন-তামিমের ধারে-কাছে নেই কেউ

Advertisment

সদ্য সমাপ্ত বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের শীর্ষ রান সংগ্রাহক লিটন। তার চেয়ে মাত্র ১ রান কম তামিমের। লিটন আর ১ রান করলেই স্পর্শ করতেন তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি রান সংগ্রহের রেকর্ড (৩১২ রান), যা তামিমেরই কীর্তি।






অবিশ্বাস্য গড় নিয়ে সিরিজে সবচেয়ে বেশি রান লিটনের, একই গড় দ্বিতীয় স্থানে থাকা তামিমেরও। এই সিরিজে লিটন জড়ো করেছেন ৩১১ রান। লিটনের মতই দুটি সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে তামিমের মোট রান ৩১০। তৃতীয় স্থানে যিনি, জোড়া অর্ধ-শতক হাঁকিয়ে সেই সিকান্দার রাজার রান ১৪৫।

সিরিজের শীর্ষ পাঁচ রান সংগ্রাহকের তালিকায় আছেন আর এক বাংলাদেশি। একটি অর্ধ-শতক মোহাম্মদ মিঠুন ৮২ রান নিয়ে আছেন পঞ্চম স্থানে। তার আগে অবস্থান সফরকারী দলের ওয়েসলে মাধেভেরের। ৩ ইনিংস মোট ১২৯ রান করেছেন তিনি, মিঠুনের মতই একটি অর্ধ-শতক হাঁকিয়েছেন।





প্রথম ম্যাচে তামিম ম্লান ছিলেন, তবে উজ্জ্বল ছিলেন লিটন। তার শতকেই দল এগিয়ে যায় সিরিজে। দ্বিতীয় ম্যাচে লিটন সুবিধা করতে না পারলেও তামিম গড়েন রেকর্ড। পরের ম্যাচে তামিমের সেই রেকর্ড ভাঙলেন লিটন, আবার তামিমও হাঁকিয়ে বসলেন শতক। তামিম-লিটনের পাল্লা দিয়ে এগোনোর সিরিজে দ্বিধায় ছিলেন সিরিজ-সেরার নির্বাচকরাও। তাই শেষমেশ দুজনকেই ম্যান অব দ্যা সিরিজ খেতাব দেওয়া হল। লিটন ও তামিমের এ দ্বৈরথ যত বাড়বে, দেশের ক্রিকেট যে ততই উপকৃত হবে!

একনজরে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে ওয়ানডে সিরিজের শীর্ষ পাঁচ রান সংগ্রাহক

নাম ইনিংস রান সর্বোচ্চ গড় স্ট্রাইক রেট
লিটন দাস ৩১১ ১৭৬ ১৫৫.৫০ ১১৮.৭০
তামিম ইকবাল ৩১০ ১৫৮ ১৫৫.৫০ ১০৭.৬৩
সিকান্দার রাজা ১৪৫ ৬৬ ৪৮.৩৩ ১০৪.৩১
ওয়েসলে মাধেভেরে ১২৯ ৫২ ৪৩.০০ ৯০.২০
মোহাম্মদ মিঠুন ৮২ ৫০ ৮২.০০ ১৩৮.৯৮

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।