সেরা উইকেট শিকারির তালিকায় দেশি বোলারদের আধিপত্য

0
1708

বিপিএলে গ্রুপ পর্বের ৩৮ টি ম্যাচ শেষে সর্বোচ্চ দশ উইকেট শিকারির তালিকায় আধিপত্য ধরে রেখেছে দেশি বোলাররা। তালিকায় একমাত্র বিদেশী হিসেবে আছেন শহিদ আফ্রিদি।

 

Advertisment

তাসকিন কঠোর পরিশ্রমী, ভালো ছাত্র: ওয়াকার

১. তাসকিন আহমেদ
সিলেট সিক্সার্সের পেসার তাসকিন আহমেদ আছেন উইকেট শিকারির তালিকায় সবার ওপরে। ১১ ম্যাচে তাঁর সংগ্রহ ২১ টি উইকেট। ম্যাচে ৪ উইকেট করে পেয়েছেন দুইবার। তবে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়েছে তাঁর দল। তাই আর মাত্র একটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবেন তাসকিন।

২. আবু জায়েদ চৌধুরি রাহি
১৮ টি উইকেট শিকার করেছেন আবু জায়েদ। চিটাগাং ভাইকিংসের এই বোলার খেলেছেন ১১ টি ম্যাচ। তাঁর ইনিংস সেরা বোলিং ২৫ রানের বিনিময়ে ৩ উইকেট।

৩. ফরহাদ রেজা, সাকিব আল হাসান, মাশরাফি বিন মর্তুজা
সমান ১১ টি করে ম্যাচ খেলে ১৭ টি উইকেট শিকার করেছেন ঢাকা ডায়নামাইটসের সাকিব আল হাসান এবং রংপুর রাইডার্সের মাশরাফি বিন মর্তুজা ও ফরহাদ রেজা। তাঁরা তিন জনেই একটি করে ম্যাচে ৪ উইকেট পেয়েছেন। তবে তিন জনের মধ্য সবচেয়ে কিপটে বোলিং করেছেন রংপুর কাপ্তান মাশরাফি। তাঁর ইকোনোমিক রেট মাত্র ৬.৮৩।

৪. আরাফাত সানি
জাতীয় দলের বাইরে থাকা আরেক স্পিনার আরাফাত সানির শিকার ১২ ম্যাচে ১৬ উইকেট। ইনিংস সেরা বোলিং ৮ রানের বিনিময়ে ৩ উইকেট। তাঁর দল রাজশাহী কিংসের গ্রুপ পর্বের ম্যাচ খেলা শেষ হয়ে গেলেও তাদের পরবর্তী রাউন্ডে যাওয়া এখনো নিশ্চিত হয়নি।

afridi

৫. শহিদ আফ্রিদি
সেরা দশে একমাত্র বিদেশি হিসেবে আছেন লেগ স্পিনার শহিদ আফ্রিদি। ১০ ম্যাচে তাঁর দখলে ১৫ টি উইকেট। আফ্রিদির দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের গ্রুপ পর্বের এখনো দুইটি ম্যাচ বাকি আছে।

৬. শফিউল ইসলাম, খালেদ আহমেদ
রংপুর রাইডার্সের আরেক পেসার শফিউল ইসলামের শিকার ১৪ টি উইকেট। শফিউল ম্যাচ খেলেছেন ১১ টি। অপরদিকে চিটাগাং ভাইকিংসের পেসার খালেদ আহমেদেরও সমান ম্যাচে শিকার ১৪ টি উইকেট। শফিউলের ইনিংস সেরা বোলিং ৩১ রানের বিনিময়ে ৩ উইকেট এবং খালেদের ইনিংস সেরা বোলিং ৩৪ রানের বিনিময়ে ৩ উইকেট।

৭. কামরুল ইসলাম রাব্বি, অলক কাপালি, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন
রাব্বি, অলক ও সাইফ যথাক্রমে ৯ টি, ১১ টি ও ১০ টি ম্যাচ খেলেছেন। তাঁদের শিকার সমান ১৩ টি করে উইকেট। আসরের সেরা বোলিং ফিগার ১০ রানের বিনিময়ে ৪ উইকেটের রেকর্ডটিও রাব্বির। অলক কাপালিও একটি ম্যাচে ৪ উইকেট পেয়েছেন। তবে তিনি খরচ করেছেন ২২ রান। আর সাইফউদ্দিনের ইনিংস সেরা বোলিং ৪৫ রানের বিনিময়ে ৩ উইকেট।

[আরও পড়ুনঃ চট্টগ্রাম পর্ব শেষে সেরা দশ রান সংগ্রাহক]