স্টার্লিংকে টপকে রিজওয়ানের বিশ্বরেকর্ড

0
976

চলতি বছরে টি-টোয়েন্টিতে ব্যাট হাতে ধারাবাহিকতার এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ রিজওয়ানকে। ইনিংস উদ্বোধন করতে নেমে পাকিস্তানকে দারুণ শুরু এনে দেওয়ার পাশাপাশি বছরের প্রথম ৭ মাসেই বিশ্বরেকর্ড গড়ে ফেলেছেন তিনি।

স্টার্লিংকে টপকে রিজওয়ানের বিশ্বরেকর্ড
মোহাম্মদ রিজওয়ান

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চলমান টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ পর্যন্ত এ বছর ১৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলা হয়েছে রিজওয়ানের। প্রায় সব ম্যাচেই তার ব্যাট হেসেছে। যার ফল হিসেবে বিশ্বরেকর্ড নতুন করে লিখিয়েছেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। আয়ারল্যান্ডে পল স্টার্লিংয়ের ২০ ম্যাচে করা ৭৪৮ রান সংগ্রহের রেকর্ডকে টপকে গিয়েছেন রিজওয়ান।

Advertisment

এই পাকিস্তানি উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান চলতি বছরে নিজের প্রথম ১৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে সংগ্রহ করেছেন ৭৫২ রান। যা এখন পর্যন্ত এক বর্ষপঞ্জিকায় টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে কোনো ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ সংগ্রহ। ১টি সেঞ্চুরি ও ৭টি হাফ সেঞ্চুরিতে এই রেকর্ডে নাম লিখিয়েছেন তিনি। এই রেকর্ডে তার স্ট্রাইকরেট ১৪০.০৩ ও ব্যাটিং গড় ৯৪। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে রেকর্ড গড়ার ম্যাচে তার ব্যাট থেকে আসে ৩৬ বলে ৪৬ রান।

বছরের কেবল সপ্তম মাস চলে, ইতোমধ্যই এক বর্ষপঞ্জিকায় সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের তালিকায় শীর্ষে উঠেছেন রিজওয়ান। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপসহ চলতি বছরে অনেক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ বাকি আছে। ফলে রিজওয়ানের রেকর্ড যে সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে যাচ্ছে সেটা বলতে বৈকি।

২০১৫ সালে অভিষেকের পর এখন পর্যন্ত ক্যারিয়ারের প্রথম ৪১টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে রিজওয়ানের সংগ্রহ ১০৬৫ রান। স্ট্রাইকরেট ১২৯.০৯ এবং ব্যাটিং গড় ৪৮.৪১।

এই তালিকায় রিজওয়ানের পরের অবস্থানের তিনটি রেকর্ডই হয়েছিল ২০১৯ সালে। বর্তমানে দ্বিতীয় স্থানে থাকা আয়ারল্যান্ডের স্টার্লিং ২০১৯ সালের ২০ ম্যাচে ৭৪৮ রান ও কেভিন ও’ব্রায়েন ২৩ ম্যাচে ৭২৯ রান এবং নেদারল্যান্ডসের ম্যাক্স ও’ডাউদ ২৪ ম্যাচের ৭০২ রান করেন। ২০১৮ সালে ১৮ ম্যাচে ৬৮৯ রান করে তালিকার পঞ্চম স্থানে আছেন ভারতের শিখর ধাওয়ান।

এই তালিকায় বাংলাদেশের পক্ষে শীর্ষে আছেন সাব্বির রহমান। বর্তমানে জাতীয় দলে ব্রাত্য এই ব্যাটসম্যান ২০১৬ সালে ১৬ ম্যাচে সংগ্রহ করেছিলেন ৪৬৩ রান।