হাথুরুসিংহেকে পুরো স্বাধীনতাই দিচ্ছে শ্রীলঙ্কা

0
793

বাংলাদেশের কোচের পদ থেকে অকস্মাৎ পদত্যাগের পর শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলের কোচ হিসেবে অভিষেক ঘটছে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের। হাই প্রোফাইলের এই কোচ বাংলাদেশের দায়িত্ব পালনকালে আলোচনায় থাকতেন তার স্বাধীনচেতা আচরণের জন্য।

হাথুরুর জন্য এক মাসের ক্ষতিপূরণ দিবে এসএলসি

Advertisment

সেই হাথুরুসিংহে যখন নিজ দেশ শ্রীলঙ্কার কোচ, নিশ্চয়ই স্বাধীনচেতা স্বভাবের বহিঃপ্রকাশ ঘটবে এবারও। সেটি আরও স্পষ্ট শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড- এসএলসির সভাপতি থিলাঙ্গা সুমাথিপালার কথায়। সম্প্রতি তিনি জানান, কাজ করার ক্ষেত্রে হাথুরুসিংহেকে পুরো স্বাধীনতাই দিবে বোর্ড।

হাথুরুসিংহেকে বিশ্বের ‘সেরা একজন কোচ’ আখ্যা দিয়ে সুমাথিপালা বলেন, ‘বিশ্বের সেরা একজন কোচকে নিয়ে তাকে কাজের স্বাধীনতা না দেয়ার তো প্রশ্নই উঠে না। আমি কোচ নই, আর বোর্ডের কেউই কোচের কাজ সম্পর্কে হাথুরুসিংহের চেয়ে বেশি ধারণা রাখেন না।

তিনি বলেন, আমাদের তাকে স্বাধীনতা দিতে হবে। আমরা বিশ্বাস করি। তবে আমরা এটাই আশা করব, সময়ে সময়ে তিনি আমাদের প্রশ্নের জবাব দেবেন।’

বিগত এক বছর ধরে নানা কারণে খারাপ সময় অতিক্রম করছে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট অঙ্গন। তবে এর মুলে জাতীয় দলের দৃষ্টিকটু ব্যর্থতা। হাথুরুসিংহের দায়িত্ব নেওয়ার পর চ্যালেঞ্জটা তাই বেশ বড়ই। তাছাড়া দায়িত্ব নেওয়ার পর হাথুরুসিংহের প্রথম মিশনই বাংলাদেশের বিপক্ষে, যে দলকে এতদিন দীক্ষা দিয়েছেন তিনিই।

বোর্ডের উপর হস্তক্ষেপ ও স্বাধীনচেতা মনোভাবের কারণে হাথুরুসিংহেকে নিয়ে ক্ষোভ আছে দেশের অনেক ক্রিকেট সংশ্লিষ্টেরই। এমনকি নিজের পছন্দ মতো খেলোয়াড় বাছাইয়েরও অভিযোগ আছে তার বিরুদ্ধে। তবে নিজ দেশ শ্রীলঙ্কায়ও বাংলাদেশের মতো পূর্ণ স্বাধীনতা পাচ্ছেন সাবেক এই শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার।

এদিকে স্বদেশী কোচকে পেয়ে দল বাড়তি সুবিধা পাবে- এমনটাই ধারণা থিলাঙ্গা সুমাথিপালার। যদিও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে দলটি বিদেশি কোচের ছোঁয়া পেতেই অভ্যস্ত ছিল এতদিন।

সুমাথিপালা বলেন,  এটা দলকে বাড়তি সুবিধা দেবে। হাথুরুসিংহের মনোভাব খেলোয়াড়দের জন্য সঠিক হবে। কারণ সব কথার বড় কথা, তিনি একজন শ্রীলঙ্কান। খেলোয়াড়দের সঙ্গে তার যোগাযোগটা ভালো থাকবে, এটা একটা সুবিধা। তাছাড়া হাথুরুসিংহের আধুনিক কোচের যা গুণ থাকা উচিত, সবই আছে।’

আরও পড়ুনঃ টি-১০ টেস্টের প্রস্তাব ওয়াকারের