২ দিনের ব্যবধানে নেট বোলার থেকে ভারতের একাদশে সন্দ্বীপ

0
1005

ক্রিকেট বিশ্বে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসের ধকল সবচেয়ে বেশি মনে হয় ভারতের ওপর দিয়েই গেল। ইংল্যান্ড সম্পূর্ণ দল পরিবর্তন করেও এমন সমস্যায় পড়েনি ভারত বর্তমানে যে সমস্যার মুখোমুখি হলো। নেট বোলারদের জাতীয় দলে অন্তর্ভুক্ত করার পরে একাদশ গঠন করতে অভিষেকও করাতে হলো।

২ দিনের ব্যবধানে নেট বোলার থেকে ভারতের একাদশে সন্দ্বীপ
সন্দ্বীপ ওয়ারিয়র

ভারতের মূল দলটি বর্তমানে আছে ইংল্যান্ডে। তাই শ্রীলঙ্কা সফরে পাঠানো হয়েছে দ্বিতীয় সারির দল। শেষ পর্যন্ত সেই দলের সেরা খেলোয়াড়দেরও একাদশে পেল না ভারত। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচের আগে ভারতীয় অলরাউন্ডার ক্রুনাল পান্ডিয়া করোনাভাইরাস পজিটিভ হওয়ার পরেই শুরু হয় বিপদের। তার সংস্পর্শে আসায় মোট ৯ জন ভারতীয় ক্রিকেটারকে যেতে হয়েছে আইসোলেশনে।

Advertisment

মূল একাদশের গুরুত্বপূর্ণ এই ক্রিকেটারদের হারিয়ে ভারতকে ছুটতে হয় বিকল্পের পথে। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচের আগেই ৫ জন নেট বোলারকে মূল দলে অন্তর্ভুক্ত করে নেয় ভারত। একাদশে গঠন করতেও হিমশিম খেতে হয়েছিল তাদের। ৫ জন ব্যাটসম্যান ও ৬ জন বোলারকে নিয়ে একাদশ গঠন করে ভারত। তবে বোলার নবদ্বীপ সাইনি পাননি বোলিংয়ের সুযোগ। বরং চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি।

ওই চোটের কারণে আর তৃতীয় ম্যাচের একাদশে জায়গা হয়নি সাইনির। তার বদলে কপাল খুলে যায় সন্দ্বীপ ওয়ারিয়রের। ২ দিন আগেও তিনি ছিলেন নেট বোলার। তারপর হঠাৎ করেই যুক্ত হলেন মূল দলে এবং পরের দিনই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়ে গেল সন্দ্বীপের। এমন নাটকীয়ভাবে অভিষেক হওয়ার কথা হয়তো সন্দ্বীপ কখনো স্বপ্নেও ভাবেননি।

৩০ বছর বয়সী এই ডানহাতি বোলার আইপিএলেই খেলেছেন কেবল ৪টি ম্যাচ। ৪ ম্যাচে তার নামের পাশে আছে কেবল ২টি উইকেট। অর্থাৎ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটেও তার অভিজ্ঞতা খুব বেশি নয়। তবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার আছে অভিজ্ঞতার ঝুলি। প্রায় এক দশক ধরে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেলছেন সন্দ্বীপ। নাটকীয়ভাবে অভিষেক হলেও অদূর ভবিষ্যতে তিনি আর ভারতীয় একাদশে সুযোগ পাবেন কিনা সেটি নিয়েও আছে সংশয়।